আপিলে প্রার্থিতা ফিরে পেলেও, এখনও প্রতীক পাননি হিরো আলম

নিউজ ডেস্কঃ আদালতের নির্দেশনা সত্ত্বেও বুধবার প্রতীক বরাদ্দ পাননি আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম। ফলে ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে তিনি প্রচারে নামতে পারেননি। হিরো আলম এর আগে ঘোষণা দিয়েছিলেন বুধবার তিনি তার পছন্দের প্রতীক ‘সিংহ’ পাওয়ার পরপরই আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারে নামবেন।

বগুড়া সদর উপজেলার এরুরিয়া এলাকার মৃত আহাম্মদ আলীর ছেলে আশরাফুল হোসেন আলম হিরো আলম নামে ইউটিউবে বিচিত্র অভিনয়, গান আর নাচ দেখিয়ে দেশব্যাপী আলোচনায় আসেন। তিনি সংসদ নির্বাচনে প্রথমে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন চেয়েছিলেন। কিন্তু তা না পাওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে গত ২৮ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। কিন্তু মনোনয়নপত্রের সঙ্গে দাখিল করা ভোটারদের স্বাক্ষর জালিয়াতির অভিযোগে বগুড়ার রিটার্নিং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ ২ ডিসেম্বর হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন।

তবে দমে যাওয়ার পাত্র নন হিরো আলম। তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তার আদেশের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেন। তবে সেখানেও তার প্রার্থিতা নাকচ হয়। পরে তিনি উচ্চ আদালতে আপিল করেন। শুনানি শেষে আদালত মঙ্গলবার হিরো আলমের প্রার্থিতা বৈধ বলে রায় দেন। এরপর প্রতীক নিতে হিরো আলম বুধবার সকালে বগুড়ায় ফিরে ওই আদেশের কপি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে দাখিল করেন। এ সময় তিনি ‘সিংহ’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার আগ্রহের কথাও জানান। তবে তার দাখিল করা উচ্চ আদালতের আদেশের কপিটি যাচাই করা সম্ভব না হওয়ায় বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তাকে প্রতীক দেওয়া হয়নি।

বগুড়া সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মাহবুব আলম শাহ জানান, আশরাফুল আলাম ওরফে হিরো আলম আদালতের দেওয়া যে আদেশের কপি দাখিল করেছেন তা যাচাই-বাছাইয়ের জন্য নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হয়েছে। কমিশন এখন যে নির্দেশনা দেবে, সেই অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। নির্বাচনের শেষ দেখে ছাড়বেন জানিয়ে হিরো আলম বলেন, ‘যত প্রতিবন্ধকতাই আসুক না কেন, আমি নির্বাচনে লড়বই।