সংখ্যালঘুদের মনোনয়ন বিগত দিনের চেয়ে বেশি

সুমন দত্ত: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলো সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য সংখ্যানুপাতিক প্রতিনিধি মনোনয়ন দেয়নি। তবে বিগত নির্বাচন গুলোর তুলনায় এবার অধিক সংখ্যক সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোক মনোনয়ন পেয়েছে। যা কিছুটা উন্নতি বলে মনে করছে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ।

রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেঞ্জ লাউঞ্জে এসব কথা বলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশ গুপ্ত। এদিন তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক, তাপস কুমার পাল, বাসুদেব ধরসহ অন্যরা।

অনুষ্ঠানে মূল বক্তব্য পড়ে শোনান রানা দাশ গুপ্ত। তিনি বলেন, আগামী ৩০ ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচন ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এতে রাজনৈতিক দলগুলো প্রাথমিকভাবে মনোনয়নের যে তালিকা প্রকাশ করেছে তাতে দেখা যায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ১৮ জনকে, জাতীয় পার্টি ৪ জনকে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল তথা বিএনপি ১২ জনকে, ঐক্যফ্রন্টের শরীক দলগুলো ৩ জন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্যকে প্রার্থী তালিকায় স্থান দিয়েছে। তবে ১৪ দল কোনো সংখ্যালঘুকে মনোনয়ন দেয়নি। তিনি বলেন, শেষ পর্যন্ত এই মনোনয়নের মধ্যে কতজন চূড়ান্ত হবে সেটি নিশ্চিত নয়। তবে সংখ্যালঘু মনোনয়নের এই হার বিগত দিনের চেয়ে বেশি। যা অবস্থার উন্নতি বলা যায়।

এছাড়া হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একটি মনিটরিং সেল গঠন করেছে। এই সেলে ফোন দিয়ে সাম্প্রদায়িক ঘটনার অভিযোগ দেয়া যাবে।  হেল্প লাইন নম্বরটি হচ্ছে +৮৮০৯৬১২১০০৩০০। এই নম্বরে ফোন দিলে সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হবে। এছাড়া পুলিশের বিভিন্ন সংস্থাকে  ঘটনা সম্পর্কে অবহিত করবেন বলে তারা জানান।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম