আগামীকাল নির্বাচনকালীন সরকার গঠন হতে পারে: অর্থমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কঃ নির্বাচনকালীন সরকার শুক্রবার গঠন হতে পারে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয়ে সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার অধীনে অপেক্ষাকৃত ছোট একটি মন্ত্রিসভা গঠন করেন। যার নাম দেওয়া হয় ‘সর্বদলীয় সরকার’। কিন্তু এবার তেমন কিছু হচ্ছে না। গত ২২ অক্টোবর গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারের আকার ছোট করা হলে উন্নয়ন প্রকল্পের বাস্তবায়ন বাধাগ্রস্ত হতে পারে। ফলে এবার নির্বাচন সামনে রেখে মন্ত্রিসভা পুনর্গঠনের প্রয়োজন আছে বলে তিনি মনে করছেন না। এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তার মন্ত্রিসভার চারজন টেকনোক্র্যাট (অনির্বাচিত) মন্ত্রী পদত্যাগ করেন। যদিও তাদের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হয়নি এখনও।

বৃহস্পতিবার ক্রয় কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকরা জানতে চান— এবার নির্বাচনকালীন সরকার কেমন হবে। জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনকালীন সরকার কেমন হবে শুক্রবারই তা জানতে পারবেন।

টেকনোক্র্যাটদের জায়গায় নতুন কাউকে নিয়োগ দেওয়া হবে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না, নতুন কাউকে আনা হবে না। এ চার মন্ত্রণালয়ে বর্তমান মন্ত্রীদের বাড়তি দায়িত্ব হিসেবে দেওয়া হবে।’ তবে এসব মন্ত্রণালয়ে বাড়তি দায়িত্ব কে পাচ্ছেন সে সম্পর্কে কিছু বলেননি অর্থমন্ত্রী।

নতুন কোনো মুখ আসছেন না— এ বিষয়ে নিশ্চিত কি-না জানতে চাইলে মুহিত বলেন, ‘মোটামুটি নিশ্চিত। কারণ, সরকারটা তো কোয়ালিশন সরকার। এমন কোনো সদস্য নেই যাকে নেওয়ার দরকার আছে। সুতরাং আমার মনে হয় না কোনো এডিশন হবে।’

সংলাপ প্রশ্নে অর্থমন্ত্রী বলেন, আলোচনা শেষ হয়ে গেছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত বলবেন প্রধানমন্ত্রী।

সিলেট-১ আসন থেকে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া প্রসঙ্গে মুহিত বলেন, ‘না না। আমি তো দাঁড়াবো না। ইটস মাই ডিসিশন। আমি নমিনেশন পেপার সাবমিট করবো। ডামি কিছু সাবমিট করতে হয়। আমার ক্যান্ডিডেট যে হবে, সে যদি মিস করে যায় তাহলে আমাকে দাঁড়াতে হবে। এটা রুটিন ব্যাপার। আমি অবসরে যেতে চাই। আই ওয়ান্ট টু রিটায়ার।’

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/জাহিদ