প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৫টি প্রকল্পের ফলক উন্মোচনে ময়মনসিংহে আসছেন শুক্রবার

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ,
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিগত ১০ বছরে ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলায় দেড় লক্ষাধিক কোটি টাকা ব্যয়ে প্রায় দুই হাজার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের বার্তা নিয়ে ময়মনসিংহ সফরে আসছেন শুক্রবার। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে ঘিরে বিভাগীয় শহরে সাজ সাজ রব এবং উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। পোস্টার-ব্যানার, ফেস্টুন, তোরণে ছেয়ে গেছে শহরের রাস্তা-ঘাট ও দেয়ালসমূহ। বঙ্গবন্ধু সুযোগ্য কণ্যা দেশরত্ব শেখ হাসিনাকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা, আন্তরিক অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানাতে দলীয় নেতাকর্মীসহ লাখ লাখ নারী-পুরুষ অপেক্ষমান।
২ নভেম্বর শুক্রবার বেলা সাড়ে ৩টায় ঐতিহাসিক সার্কিট হাউজ মাঠে চার জেলার ১৯৫টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধনী নামফলক উন্মোচন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ আয়োজিত সার্কিট হাউজ মাঠে এক বিশাল জনসভায় ভাষণ দিবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জনসভায় সভাপতিত্ব করবেন জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকা। এতে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দও বক্তৃতা করবেন। এসব প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে অষ্টম বিভাগের দৃশ্যমান পরিবর্তন ঘটবে। এতে আর্থসামাজিক উন্নয়ন উন্নয়নের পাশাপাশি মানুষের জীবনমানেরও ব্যাপক উন্নতি ঘটবে বলে প্রত্যাশা দলীয় নেতাকর্মীদের। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে ঘিরে সার্কিট হাউজ মাঠে চারস্তরের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার মোঃ শাহ আবিদ হোসেন। জনসভার মাঠের চারপাশে বাঁশ দিয়ে শক্ত বেষ্টনী, মাঠের সামনে বিশাল সুসজ্জিত মঞ্চ, মুক্তিযোদ্ধা, মহিলা, উর্ধ্বতন দলীয় নেতাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গদেরজন্য আলাদা জায়গার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে আয়োজকরা জানান। জনসভার মাঠের ভিতরে প্রয়োজনীয় বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ এবং পুরো নগরীর রাস্তা-ঘাট পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে সুন্দর ও স্বার্থক করতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক ইকরামূল হক টিটু জানান।
এদিকে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাটি সফল করার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় একটি হোটেলে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলী এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। স্মরণকালের সর্ববৃহত্তম জনসভায় কয়েক লাখ লোকের সমাগমহবে বলে নেতৃবৃন্দ জানান। জনসভাকে স্বার্থক ও সফল করে তুলতে দলীয় নেতাকর্মীসহ সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন নেতৃবৃন্দ।
জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকার সভাপতিত্ব অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মেজবাহ উদ্দিন সিরাজ, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এহতেশামূল আলম, জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিতউর রহমান শান্ত ও নবগঠিত ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক ইকরামূল হক টিটু প্রমূখ।
ময়মসনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসান জানান, ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলার ১০১টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৯৪টি প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তরসহ মোট ১৯৫টি প্রকল্পের ফলক উন্মোচন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তন্মধ্যে উদ্বোধনযোগ্য প্রকল্পের সংখ্যা ময়মনসিংহে ৩১, নেত্রকোণায় ১৯, জামালপুরে-৬ ও শেরপুরে ৪৫টি। আর ভিত্তি স্থাপনযোগ্য প্রকল্পগুলো হলো ময়মনসিংহ বিভাগীয় পর্যায়ে ১০টি প্রকল্প, ময়মনসিংহ জেলায় ৩৪, নেত্রকোণায় ১৭, জামালপুরে-১৯ ও শেরপুরে ১৪টি।
বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসান আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেসব মেগা প্রকল্পের ভিত্তি ও উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করবেন তা হলো- প্রস্তাবিত আধুনিক নতুন বিভাগীয় শহরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন, বিভাগীয় কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজি’র কার্যালয়, বিভাগীয় সার্কিট হাউজ, ময়মনসিংহ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ময়মনসিংহ এফএম বেতার কেন্দ্র, ময়মনসিংহ মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, নেত্রকোণায় শেখ হাসিনার বিশ^বিদ্যালয়, নেত্রকোণা মেডিকেল কলেজ, নেত্রকোণা স্টেডিয়াম, জামালপুরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, শেখ হাসিনা কম্পোজিট জুট টে´টাইল মিল, শেখ হাসিনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, শেখ রাসেল টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট, ময়মনসিংহ, বাংলাদেশের বৃহৎ ও আন্তর্জাতিকমানের বঙ্গবন্ধু নভো থিয়েটার, ব্রহ্মপূত্র নদের ওপারে নতুন শহররক্ষা বাধ, বিভাগীয় স্টেডিয়াম, শহরের কেওয়াটখালিতে ব্রহ্মপূত্র নদের উপর সেতু নির্মাণসহ ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর ও নেত্রকোণা জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের প্রায় দেড় শত প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তি স্থাপন করবেন। সওজ ময়মনসিংহ জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ মনিরুল ইসলাম জানান, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর অধীনে ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর ও নেত্রকোণাসহ চার জেলায় ময়মনসিংহ বিভাগে ৩ হাজার ৯০৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করবেন প্রধানমন্ত্রী। ময়মনসিংহ জেলায় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ইউসুফ আলী জানান, শিক্ষা বিভাগের ১৬১ কোটি টাকার ১৭টি প্রকল্প প্রকল্পের ভিত্তি ও উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করবেন প্রধানমন্ত্রী।
এর আগে ২০১৩ সালে ৩ জানুয়ারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহে সফরে এসেছিলেন। এর আগে চলতি বছরের ৫ এপ্রিল, ১২ এপ্রিল ও ১১ অক্টোবর তিন দফা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ সফর সূচির কথা থাকলেও পরবর্তীতে তা স্থগিত করা হয়।
উল্লেখ্য, ব্রিটিশ সরকার ১৭৮৭ সালের ১ মে ময়মনসিংহ জেলা এবং ১৮২৯ সালে ঢাকা বিভাগ প্রতিষ্ঠা করে। ঢাকা বিভাগ প্রতিষ্ঠার ১৮৬ বছর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ১৩ অক্টোবর ময়মনসিংহকে বাংলাদেশের অষ্টম প্রশাসনিক বিভাগ প্রতিষ্ঠা করেন।