নির্বাচন নিয়ে যে সংশয় ছিল তা আর নেই: এরশাদ

নিউজ ডেস্ক:   জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘নির্বাচন নিয়ে যে সংশয় ছিল তা আর নেই। যারা নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছিল, তারা ব্যর্থ হয়েছে। এখন মাঠে রয়েছে শুধু আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি এবং বিএনপি।’

শনিবার রাজধানীর বনানীতে নিজের কার্যালয়ে ‘ডিজিটাল পদ্ধতিতে’ নির্বাচনী প্রচারের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে ২০ অক্টোবর ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মিলিত জাতীয় জোটের মহাসমাবেশে আগামী নির্বাচন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছিলেন।

তবে মাত্র এক সপ্তাহের মাথায় শনিবার তিনি তার স্বর পাল্টিয়ে বলেন, ক্ষমতা ছাড়ার পর থেকেই তার হাত-পা বাঁধা। এখনও বাঁধা রয়েছে। তারপরও এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। হাত-পা বাঁধা থাকলেও এবার আর সংশয় নেই। তিনি আশাবাদী, আসন্ন নির্বাচন সুষ্ঠু হলে তার দল ক্ষমতায় যাবে।

এরশাদ বলেন, ‘আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাপার কৌশল কী হবে তা নির্ভর করছে বিএনপির গতিবিধির ওপর। বিএনপি ভোটে এলে জাপা আওয়ামী লীগের সঙ্গে থেকে জোটবদ্ধ নির্বাচন করবে। বিএনপি না এলে ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে জাপার নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোট।’

জাপা চেয়ারম্যান জানান, নির্বাচনের জন্য তার দল প্রস্তুত। এবারের নির্বাচনে জাপার স্লোগান ‘পল্লীবন্ধুর হাত ধরে দেশ শাসনে আরেকবার’। এই প্রচারে জাতীয় পার্টির নয় বছরের শাসনামলের কার্যক্রম তুলে ধরা হবে।

এরশাদ বলেন, আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই মনোনয়ন বোর্ড গঠন করা হবে। মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিয়ে যোগ্যতম ব্যক্তিকে মনোনয়ন দেওয়া হবে।

ডিজিটাল পদ্ধতিতে দলীয় প্রচার প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, প্রতিদিন সাড়ে চার কোটি মানুষের কাছে জাপার কার্যক্রম তুলে ধরা হবে। গুগলে একটি প্ল্যাটফর্ম থাকবে, যেখানে ক্লিক করলে তার শাসনামলের উন্নয়নের চিত্র দেখা যাবে।

জাপা চেয়ারম্যানের তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদষ্টো পীরজাদা শফিউল্লাহ আল মনিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দলের মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, ফয়সাল চিশতি, মেজর (অব.) খালেদ আখতার প্রমুখ।