বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসব হচ্ছে না !

নিউজ ডেস্কঃ   এ বছর হচ্ছে না বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সংগীত উত্সব। নভেম্বরে ঢাকায় বিশ্বের উচ্চাঙ্গ সংগীত শিল্পীদের নিয়মিত যে আন্তর্জাতিক আসর বসত এবার তা বসছে না। শিল্পীদের সুর মূর্ছনায় সারারাত ভেসে বেড়ানোর সেই সুন্দর উত্সব থেকে বঞ্চিত হবেন শ্রোতারা।

বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বেঙ্গল ফাউন্ডেশন এবছর নভেম্বরে উত্সব আয়োজন থেকে পিছিয়ে এসেছে। এর পরিবর্তে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে উত্সব আয়োজনের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছি আমরা।

উপ-মহাদেশীয় শাস্ত্রীয় সংগীতের অন্যতম সেরা আয়োজন হিসেবে স্বীকৃত এই উত্সবে প্রতিবার উপ-মহাদেশের কিংবদন্তিতুল্য শিল্পীরা অংশ নিয়ে থাকেন। লুভা নাহিদ চৌধুরী আরো বলেন, বেঙ্গল ফাউন্ডেশন ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের ৭ থেকে ১১ তারিখ পর্যন্ত উত্সব আয়োজনের জন্য সম্ভাব্য ভেন্যু খুঁজছে। নিঃসন্দেহে আমাদের পছন্দের ভেন্যু আর্মি স্টেডিয়াম। তবে, তার বিকল্প হিসেবেও নতুন ভেন্যুর খোঁজ করা হচ্ছে।

গত কয়েক বছর ধরেই উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসবটি সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করে। ২০১৪ সালে সারাদেশে আগুন সন্ত্রাসের সময়ও নির্বিঘ্নে এ উৎসব চলেছে। এমনকি ২০১৬ সালে হোলি আর্টিজানের মতো ভয়াবহ ঘটনার পরেও বিদেশি শিল্পীরা বাংলাদেশে এসেছিলেন গান শোনাতে। আর দেশের মানুষও এসেছিলেন বাঁধ ভাঙা জোয়ারের মতো। ২০১৭ সালে ক্যাথলিক ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস বাংলাদেশে আসা উপলক্ষে নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে আর্মি স্টেডিয়াম বরাদ্দ না দেওয়ায় অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছিল উৎসব আয়োজন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগ্রহে ধানমন্ডির আবাহনী মাঠে উত্সব আয়োজন করা হয়। আর্মি স্টেডিয়ামের পরিবর্তে ধানমন্ডির আবাহনী মাঠে ২৬ থেকে ৩০ ডিসেম্বর বসেছিল উচ্চাঙ্গ সংগীত উত্সব ২০১৭। তাহলে কি এবার ধানমন্ডি মাঠেই বসবে উত্সব? এর উত্তরে লুভা নাহিদ চৌধুরী বলেন, ধানমন্ডি সুন্দর ভেন্যু; কিন্তু এটা আবাসিক এলাকা। সেখানে অনেক প্রবীণ ব্যক্তিরা থাকেন, যাদের সারারাত ধরে চলা উত্সবের শব্দে সমস্যা তৈরি হয়। সে কারণে হয় আর্মি স্টেডিয়াম নয়তো নতুন ভেন্যুর খোঁজ করছি আমরা।