আটকে আছে সরকারি স্কুলের সহকারি শিক্ষকদের পদোন্নতি

সুমন দত্ত: মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বকেয়া টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড (পদোন্নতি) বাস্তবায়ন করা হচ্ছে না বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষকরা। তারা সরকারের কাছে দ্রুত এসব অধিকার বাস্তবায়নের দাবি জানান। রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেঞ্জ লাউঞ্জে এসব কথা বলেন তারা। 

শিক্ষকদের হয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বকেয়া টাইমস্কেল/সিলেকশন গ্রেড দ্রুত বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক মোহাম্মদ আলী বেলাল।

তিনি বলেন, সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর সহকারি শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা দিয়ে তাদের বেতন দেয়া হচ্ছে তৃতীয় শ্রেণির মত। এমনটা হওয়ার কথা ছিল না। বিগত চার পাঁচ বছর যাবত শিক্ষকদের টাইমস্কেল অনুসারে সিলেকশন গ্রেড (পদন্নতি) দেয়ার কাজ অজানা কারণে আটকে আছে। সরকারের অন্য মন্ত্রণালয়ের কর্মচারিরা টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পেলেও, মাধ্যমিক সহকারি শিক্ষকরা টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পাচ্ছে না। ১৯৯৯,২০০১,২০০২,২০০৫,২০০৬,২০০৯,২০১০,২০১১ সালে যোগদান করা সহকারি শিক্ষকদের কারো টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড দেয়া হয়নি। অথচ তাদের চাকরির বয়স ৪ বছর, ৮ বছর, কারো ১৫ বছর হয়ে গেছে। মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ও অর্থমন্ত্রণালয়ের চিঠি চালাচালির মধ্যেই এই কাজ আটকে আছে বলে তারা জানান। 

এ সংকট নিরসনে দেশের মাধ্যমিকের সহকারি শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্ধ দেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ চান। তাদের ন্যায্য অধিকার দ্রুত বাস্তবায়ন দেখতে চান তারা। সরকার তাদের জন্য যে ঘোষণা দিয়েছেন সেটার বাস্তবায়ন দেখতে চান তারা। 

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/এসডি