চীন সফর শেষে ফিরলেন চসিক মেয়র

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক)’র মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন চীন সফর শেষে গতকাল মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম ফিরেছেন। তিনি গত বৃহস্পতিবার সকালে চীনের সাংহাই নগরে অনুষ্ঠিত হুয়া ওয়ে কানেক্ট-২০১৮ অ্যাক্টিভেট ইন্টেলিজেন্স শীর্ষক সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম ত্যাগ করেন। সম্মেলন শেষে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৫মিনিটে ঢাকা থেকে রিজেন্ট এয়ারলাইন্সের বিমান যোগে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে এসে পোঁছান।

সফরসঙ্গী কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সামসুদ্দোহা ও আইটি অফিসার ইকবাল হাসান মেয়রের সাথে চট্টগ্রাম ফিরেছেন। সফরকালে সিটি মেয়র হুয়া ওয়ে টেকনোলজিস কোম্পানীর ‘স্মার্ট সিটি মেগাসিটি’ প্রকল্পের আওতায় চীনের সেনজেন সিটির নিরাপত্তা বলয় কার্যক্রম, আইওটি বাস্তবায়নকারী সংস্থার প্রদর্শণী কেন্দ্র,ম্যানুফেকচার ফ্যাক্টরী,সিভিল ভিলেজ এবং হুয়া ওয়ের প্রধান কার্যালয় এর ইত্যাদি কার্যক্রম প্রত্যক্ষ করেন। বিমান বন্দরে এসে পৌঁছলে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র ড. নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জুসহ কর্পোরেশনের পদস্থ কর্মকর্তাগন মেয়রকে অর্ভ্যথনা জানান।

আগ্রাবাদ এক্সেস ও পোর্ট কানেকটিং রোড পরিদর্শন : এদিকে বিমান বন্দর থেকে ফেরার পথে মেয়র আগ্রাবাদ এক্সেস রোড ও পোর্ট কানেকটিং রোড উন্নয়ন কাজও পরিদর্শন করেন। এই প্রকল্পের আওতায় নিমতলা পোর্ট কানেকটিং থেকে নয়া বাজার এবং আগ্রাবাদ বাদামতলী থেকে বড়পুল পর্যন্ত ১৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়িত হচ্ছে। জাইকার অর্থায়নে এ প্রকল্পের মধ্যে রাস্তার দুই পাশে আরসিসি ড্রেইন, ফুটপাত নির্মাণ, রাস্তার মাঝখানে ২ মি. প্রস্থের মিডিয়ান নির্মাণ সহ এলইডি আলোকায়নের ব্যবস্থা রয়েছে।

ইতোমধ্যে আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের ব্রিক ড্রেইনের কাজ শতভাগ, আর সি সি ড্রেইনের কাজ ৭০ ভাগ এাবং স্কেভেটর এর মাধ্যমে কাদা মাটি অপসারন পূর্বক বালি ফিলিং,সাব বেইজড এর কাজ এবং পোর্ট কানেকটিং রোডের আর সি সি ড্রেইন, বালি ফিলিং,সাববেইজড ইত্যাদি কাজ চলমান রয়েছে। পোর্ট কানেকটিং ও আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের গুরুত্বের কথা উল্লেখ করে মেয়র বলেন চট্টগ্রাম বন্দরের পণ্য পরিবহনে রোড দুটির গুরুত্ব অপরিসীম।

এ সড়ক দিয়ে বন্দর থেকে পণ্য বা কন্টেইনার বাহী পরিবহন ঢাকা সহ দেশের নানান প্রান্তে যাতায়াত করে। ছয় লেইন বিশিষ্ট এ রোড দু’টির উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়িত হলে বন্দরের পণ্য পরিবহনের গতিশীলতা ফিরে আসবে। কাজের গুনগতমান অক্ষুন্ন রাখার উপর গুরুত্বারোপ করে মেয়র সংশ্লিষ্টদের যথাযথ তদারকি এবং নির্দ্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই এ রাস্তা নির্মাণের কাজ সম্পন্ন করার নির্দেশ দেন। এ প্রসঙ্গে তিনি উন্নয়নকাজ চলাকালীন সময়ে সড়কগুলোতে অবৈধ পার্কিং এর কারনে যানজট সৃষ্টি না করার জন্য বাস, ট্রাক ও লরি,কন্টেইনার মালিকদের প্রতি আহবান জানান ।

সিটি মেয়রের সাথে চসিক প্রকৌশলীদের বৈঠক : চীন সফর থেকে অফিসে যোগদান করে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন আজ বিকেলে চসিক প্রকৌশলীদের সাথে বৈঠকে মিলিত হন।

বৈঠকে মেয়র প্রকৌশলীদের নিকট থেকে সাম্প্রতিক টানা বর্ষণে ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের খোজ খবর নেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত রোড সমূহের দ্রুত মেরামত ও সংস্কারের নির্দেশ দেন। এছাড়া মেয়র প্রকৌশলীদের কাছ থেকে জাইকা, এডিপি,থোক বরাদ্ধ প্রকল্প কার্যাদেশ প্রাপ্ত প্রকল্প সমূহের বাস্তবায়ন কাজের অগ্রগতি বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। বৈঠকে চসিক প্রধান নির্বাহি মো. সামসুদ্দোহা,সচিব আবুল হোসেন, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম,তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আনোয়ার হোসাইন,মনিরুল হুদা,নির্বাহি প্রকৌশলী সুদীপ বসাক,প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শফিকুল মান্নান ছিদ্দিকীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/প্রিন্স