কোটার দাবিতে আদিবাসী শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ

রাবি প্রতিনিধি: সকল সরকারি চাকরিতে ৫% আদিবাসী কোটা রাখাসহ পূর্ণবাস্তবায়নের দাবিতে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আদিবাসী কোটা রক্ষা কমিটি।

রবিবার সকাল সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে তারা এ কর্মসূচি পালন করেন। এতে রাস্তার উভয় পাশের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত এখনও আন্দোলন চলছে।

এসময় বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটা সংস্কার আন্দোলনের পরে কোটা সংস্কারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী সংসদে কোটা বাতিলের ঘোষণা দেন এবং ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রাখবেন বলে আশ্বান দেন। কিন্তু কোটা সংস্কার পর্যালোচনা কমিটির প্রধান মন্ত্রীপরিষদ সচিব তার সুপারিশে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য উপেক্ষা করে আদিবাশসীদের কোটা না রাখার প্রস্তাব করেন। এতে পবিত্র সংবিধানের চরম অবমাননা করা হয়েছে। আমরা যারা ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী তাদের জন্য ৫% কোটা রাখা হয়েছিল তা কখনোই পূর্ণ হয় নি।

বক্তারা আরও বলেন, মন্ত্রিপরিষদ সচিব ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীরা এখন অগ্রসর জাতি বলে যে মিথ্যা বানোয়াট মন্তব্য করেছেন তার কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণ নেই। এখনও আদিবাসীরা অনগ্রসর, দারিদ্র্য ও কুসংস্কারে ডুবে থাকার কারণে তাদের আর্থ-সামাজিক ও শিক্ষা গ্রহণে অনেক পিছিয়ে । তাই তাঁদের মূল স্রোত ধারায় নিয়ে আসার জন্য কোটা ব্যবস্থা চালু রাখা খুবই জরুরী। বিক্ষোভ সমাবেশ ও অবস্থান কর্মসূচি থেকে আদিবাসীদের জন্য কোটা পুর্নবহালের জোর দাবি জানান এবং তা কোনো ক্রমেই ৫% এর নিচে নয়।

আন্দোলনে আরও বক্তব্য দেন আদিবাসী কোটা রক্ষা কমিটির আহ্বায়ক রুহুল আমিন কিস্ক, সদস্য বিজয় টুটু, প্রদীপ, সুইট মারডী প্রমূখ শিক্ষার্থী।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/প্রিন্স