জামাল খাসোগির নিখোঁজের ’সত্য’ জানাতে হবে: গুতারেজ

নিউজ ডেস্ক: সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাসোগির নিখোঁজের বিষয়ে  ‘সত্য’ প্রকাশের দাবি করেছেন জাতিসংঘ প্রধান। জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বিবিসিকে বলেন, এই ধরণের নিখোঁজের ঘটনা নিয়মিত ও স্বাভাবিক হয়ে উঠবে- এমন ভয় পাচ্ছেন তিনি।

বালিতে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের বৈঠকে গুতারেজ বলেন, সত্য স্পষ্ট করার জন্য আমাদের জোরালো অনুরোধ রয়েছে। আমাদের জানা দরকার, প্রকৃতপক্ষে কী ঘটেছে এবং এ ঘটনায় আসলে কে দায়ী। এই ধরনের অবস্থায় অবশ্যই আমাদের জবাবদিহিতা পথ নিয়ে ভাবা দরকার। 

তিনি বলেন, এ ঘটনার জবাবদিহিতা নিশ্চিতই স্বাভাবিক প্রক্রিয়া হওয়া উচিত বলে আমি বিশ্বাস করি। আমি আসলেই এ ঘটনায় চিন্তিত। কারণ এ ধরণের ঘটনা বেড়েই চলছে। তাই এমন ঘটনা রোধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সরব হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা জরুরি।

৫৯ বছর বয়সী জামাল খাসোগি আল-ওয়াতান পত্রিকা ও সৌদি টিভির সাবেক সম্পাদক ছিলেন। তিনি এক সময় সৌদি রাজপরিবারের খুবই ঘনিষ্ঠ ছিলেন এবং ঊর্ধ্বতন সৌদি কর্মকর্তাদের উপদেষ্ট ছিলেন। 

কিন্তু তার কয়েকজন বন্ধুকে গ্রেফতার করার পর জামাল খাসোগি সৌদি আরব ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান এবং সেখান থেকে ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকায় লেখালেখি চালিয়ে যাচ্ছিলেন ও বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন।

কিছু কাগজপত্র তোলার জন্য গত ২ অক্টোবর জামাল খাসোগি তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে ঢোকার পর থেকে নিখোঁজ। তার বান্ধবীর দাবি, তাকে কনস্যুলেটের বাইরে দাড় করিয়ে রেখে খাসোগি ভেতরে যান। কিন্তু তিনি আর বেরিয়ে আসেননি।

শুক্রবার তুরস্কের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, সৌদি সরকারের নির্দেশে কনস্যুলেটের ভেতরে জামাল খাসোগিকে হত্যা করা হয়েছে। এর পক্ষে অডিও ও ভিডিও প্রমাণ তাদের হাতে এসেছে। 

অবশ্য সৌদি সরকারের একজন কট্টর সমালোচক সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে ইস্তাম্বুলে কনস্যুলেটের ভেতরে হত্যার নির্দেশ প্রদানের অভিযোগ ‘মিথ্যা ও ভিত্তিহীন’ বলে দাবি করেছে সৌদি সরকার।

শনিবার সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স আব্দুল আজিজ বিন সউদ বিন নাইফ বিন আব্দুল আজিজ সৌদি প্রেস এজেন্সির কছে এ দাবি করেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।  তুরস্কের দাবি নাকচ করে প্রিন্স আব্দুল আজিজ বলেন, তার দেশ আন্তর্জাতিক আইন ও নীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। সূত্র: বিবিসি