স্বাধীন সাংবাদিকতার সাথে সাংঘর্ষিক ধারা বাতিলের দাবিতে মানবন্ধন

রাবি প্রতিনিধি: ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’-এর মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও স্বাধীন সাংবাদিকতার সঙ্গে সাংঘর্ষিক ধারাসমূহ বাতিলের দাবিতে মানবন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বুধবার বেলা ১১ টার দিকে রবীন্দ্র ভবনে বিভাগের সামনে এ মানববন্ধন করেন তারা।

মানববন্ধনে বিভাগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বিভিন্ন মানবাধিকার ও সাংবাদিক সংগঠন থেকে শুরু করে যারা স্বাধীন মতপ্রকাশে বিশ্বাস করে, যারা মনে করে সাংবাদিকতার পথ আরও উন্মুক্ত থাকুক, তাদের আপত্তিকে উপেক্ষা করে সম্প্রতি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস করা হয়েছে। আমরা মনে করি বিশ্ববিদ্যালয়ে সবসময় একটা মুক্ত অঙ্গণ হয়ে উঠুক। আমরা যে জ্ঞান চর্চা করি তার জন্য একটা মুক্ত পরিবেশ থাকা দরকার। কিন্তু ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বেশ কিছু ধারা সে মুক্ত চর্চার ক্ষেত্রে বাধা বলে আমরা মনে করি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে যে ডিজিটাল যোগাযোগের চর্চা শুরু হয়েছে তাকে আমরা সাধুবাদ জানাই। ডিজিটালি মানুষ বিভিন্ন রকম যোগাযোগ করে সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পুরনো যুগের ধারার মতো করে বর্তমান ইন্টারনেটের যুগে আইনগুলোকে চর্চা করলে সেটা রাষ্ট্রের জন্য মঙ্গলজনক হবে না। ডিজিটাল যুগের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে স্বাধীনভাবে ইন্টারনেটের মাধ্যমে মতপ্রকাশ করা। আগে যখন প্রিন্টের মাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছে তখন তা আইনের আওতায় চলে আসত। কিন্তু ডিজিটাল যুগে আমরা দেখতে পাচ্ছি আপনি বন্ধুর সাথে কথা বলছেন সেটা ব্যবহার করে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। এই আইন ব্যবহার করে বিভিন্ন গোষ্ঠি তাদের নিজেদের স্বার্থ হাসিল করার সুযোগ রয়েছে।

মানববন্ধনে বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মামুন আব্দুল কাইয়ুমের সঞ্চালনায় বিভাগের অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডে, সহযোগী অধ্যাপক মশিহুর রহমান, কাজী মামুন হায়দার, মো. মাহাবুর রহমান, আব্দুল্লাহীল বাকীসহ বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/প্রিন্স