আ’লীগ কেন্দ্রীয় নেতা ডক্টর মোহাম্মদ আবুল হোসাইন দীপুর গণ-সংযোগ

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আসন্ন। মনোনয়ন প্রত্যাশীরা গণ সংযোগ করে যাচ্ছেন। প্রার্থীর পদচারনায় মুখর দেশ,গ্রাম-জনপদ। প্রযুক্তি নির্ভর নির্বাচনী প্রচারনায় ব্যস্ত দলীয় প্রার্থীরা। ডিজিটাল ব্যানার, ফেস্টুন, ই-মেইল, ইমু, ম্যাসেঞ্জার তথ্য প্রযুক্তির সকল উৎস ব্যবহৃত হচ্ছে।

নেতাদের অনুসারীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক পাতায় প্রিয়জনের নিত্য নতুন পোষ্ট, শেয়ার, কমেন্টস, লাইক এসব দিয়ে যাচ্ছেন অবিরাম।

গণ মাধ্যমের জন্য এই নাগরিক সাংবাদিকতা দায়িত্বশীল ও স্বীকৃত না হলেও কিছুটা সহায়ক বটে।
গণ মাধ্যম কর্মীরাও সরেজমিন প্রতিবেদন তৈরীর জন্য অধিক সক্রিয় হয়েছেন।

ময়মনসিংহ ১০- আসন গফরগাঁও-পাগলা নিয়ে গঠিত। দুই থানা এক পৌরসভা নিয়ে গঠিত এই আসন। ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ, ২৪ হাজার ১২৭ জন।

গফরগাঁও থানা এলাকা সাত ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় মোট ভোটার ১ লাখ, ৫৩ হাজার ৩৮৬ জন। পাগলা থানা এলাকার আট ইউনিয়নের মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ, ৭০ হাজার ৭৪১ জন।

গফরগাঁওয়ে নির্বাচনী মাঠে প্রার্থী রয়েছেন একঝাঁক । ভোটারদের কাছে কেউ কোকিল কেউ কাক। কেউ নবীন কেউ প্রবীন।

গফরগাঁওয়ের বিশাল নির্বাচনী এলাকা নিয়ে প্রায় প্রতিদিনই প্রচার প্রচারনায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সদস্য ডক্টর মোহাম্মদ আবুল হোসাইন দীপু।

এবারের নির্বাচনে নতুন ও তরুন ভোটাররা অনেক যাচাই বাছাই করে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন বলে মনে করেন এই শিক্ষাবিদ রাজনীতিক।এছাড়া প্রার্থীদের অন্যান্য গুনাবলী, সুশাসন, শিক্ষাগত যোগ্যতা ইত্যাদি প্রাধান্য পাচ্ছে তরুন প্রজন্মের বিচার বিশ্লেষণে।

প্রধানমন্ত্রী তনয় ,তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় যুব সমাজের কাছে রোল মডেল। অনন্য মেধাবী হিসেবে ইতিমধ্যে আপন পরিচয় দেশবাসীর কাছে তোলে ধরেছেন।

বঙ্গবন্ধুর এই দৌহিত্র ক্ষুধা,দারিদ্রমুক্ত, উন্নত জাতি হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ^ দরবারে আসীন করতে চান। আগামীর বাংলাদেশ গড়তে সজীব ওয়াজেদ এর বিকল্প নেই।

গফরগাঁবাসী মনে করেন, ডক্টর মোহাম্মদ আবুল হোসাইন দীপু একজন শিক্ষাবিদ রাজনীতিক,শিল্প উদ্যোক্তা,দূরদৃষ্টি সম্পন্ন মানুষ।

প্রগতিশীল মিষ্টভাষী এই মানুষটি ইতিমধ্যে জয় করে নিয়েছেন গফরগাঁও-পাগলা এলাকার লাখো জনতার হৃদয়
গফরগাঁওয়ের সিংহ পুরুষ প্রয়াত আলতাফ হোসেন গোলন্দাজ এর মতন সুমহান ব্যক্তিত্বের কাছে রাজনীতির হাতেখড়ি নিয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছেন দক্ষিণাঞ্চলের কৃতি সন্তান ডক্টর মোহাম্মদ আবুল হোসাইন দীপু। ইতিমধ্যে তিনি ভোটার ও জন সাধারণের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন ।

গফরগাঁও-পাগলা এলাকার আপামর জনতাকে নিয়ে অভিষ্ঠ লক্ষ্যে পৌঁছতে এগিয়ে চলেছেন।

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের সাথে মত বিনিময় করে চলছেন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী

লীগের উপ- কমিটির সদস্য,কেন্দ্রীয় কৃষক লীগ সদস্য, আওয়ামী লীগ নেতা শিক্ষাবিদ ডক্টর আবুল হোসাইন দীপু।

ধারাবাহিকভাবে তিনি গণ সংযোগ,উঠান বৈঠক ও পরামর্শ সভা করছেন কেন্দ্রীয় এই নেতা।এলাকার উন্নয়নে প্রতিশ্রুতিশীল প্রচার পত্র বিলি করছেন। যাচ্ছেন জন সাধারনের দুয়ারে দুয়ারে। তিনি জানালেন,স্কুল জীবন থেকেই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে জড়ান।

ঢাকা কবি নজরুল কলেজ ও ডাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। সফল শিল্পপতি এই রাজনীতিক গফরগাঁওয়ের মা-মাটি-মানুষের নেতা হয়ে থাকতে চান গণ মানুষের মাঝে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এবারও তিনি দলীয় মনোনয়নের অন্যতম দাবিদার বলে জানান। সে লক্ষ্যে নিবেদিত হয়ে গণ মানুষের কাছে ছুটে চলেছেন। এই আসনটি বরাবরই আওয়ামী লীগের দখলে।

বিগত ২০০৭ সাল থেকে দশম জাতীয সংসদ নির্বাচনে গফরগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়েছেন। স্বচ্ছ ভাবমুর্তির জন্য তৃণমুলের পছন্দের তালিকায় ছিলেন। গফরগাঁওয়ের উস্থি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক সালেক আহমেদ বলেন, জনমত ও অন্যান্য জরিপে আমাদের দৃষ্টিতে যোগ্য.দক্ষ ও উপযুক্ত প্রাথী ডক্টর আবুল হোসাইন দীপু। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস দক্ষিণাঞ্চলের এই কৃতি সন্তান দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে আসবেন।

স্বপ্নবাজ মানুষ ডক্টর মোহাম্মদ আবুল হোসাইন দীপু গফরগাঁওকে সম্পুর্ণ বদলে দিতে কর্ম ও উৎপাদন মুখীতার বার্তা দিয়ে যাচ্ছেন জনগণকে। তিনি বলেন, কর্মমুখী শিক্ষার প্রসার আর কৃষি-শিল্প বিপ্লবের মাধ্যমে গফরগাঁওয়ের আপামর মানুষের ভাগ্য, ও জীবনমান উন্নয়ন সম্ভব। দিন পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে বদলে দিতে চান প্রিয় এলাকা।

আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী,ভক্ত-অনুসারীদের নিয়ে অবিরাম ছুটে চলেছেন ডক্টর আবুল হোসাইন দীপু। প্রিয় গফরগাঁও বাসীর প্রতি উদাত্ত আহবান জানান, নৌকা প্রতীকের দলীয় প্রার্থীর পক্ষে জান বাজী রেখে কাজ করার। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন, অভুতপুর্ব অর্জন, শান্তি সমৃদ্ধির কথা তোলে ধরার জন্য দলীয় নেতা-কর্মীদের অনুরোধ জানান।

গণ মানুষের দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যেন আবারো দেশ ও জনগণের সেবা করার সুযোগ পায় সেজন্য নিজ নিজ এলাকায় দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করতে হবে। তিনি বলেন, অগ্রগতি,শান্তি সমৃদ্ধির আর উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগ সরকারের কোনো বিকল্প নেই।

বিএনপি-জামায়াত চক্রের কোনো ষড়যন্ত্র যেন সফল না হয়। সেই ক্ষেত্রে প্রতিটি আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীকে অতন্দ্র প্রহরী হয়ে কাজ করতে হবে।

গফরগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাবেন ডক্টর আবুল হোসাইন দীপু এমনটাই আশাবাদ নিগুয়ারী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দিনের। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন যাবত আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের পাশে সুখ:দুখে ছায়ার মতন রয়েছেন।

ডক্টর আবুল হোসাইন দীপু আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, দলের জন্য নিবেদিত হয়ে কাজ করে যাচ্ছি। কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য, কৃষক লীগ কেন্দ্রীয় সদস্য ও আওয়ামী নবীন লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি। জনগনের পাশে দাঁড়িয়ে সেবা করে যাচ্ছি। আশা করি জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে গফরগাঁও বাসীর সেবা করার সুযোগ দিয়ে কৃতার্থ করবেন।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/প্রিন্স