কেশবপুরে কিশোরেরর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

কেশবপুর, যশোর প্রতিনিধি: যশোরের কেশবপুর উপজেলার সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের পাচানি গ্রামের একটি ধান ক্ষেত থেকে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ তরিকুল ইসলাম (১৫) নামের একজন ইটভাটার শ্রমিককের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে। গভীর রাতে তরিকুলকে জবাই করে কে বা কারা বাড়ির পাশে ধান ক্ষেতে ফেলে রেখে চলে যায় । পুলিশ হত্যার কারন বা হত্যার সাথে জড়িত কাউকে চিহিৃত করতে পারেনি।

পুলিশ,এককাবাসী ও সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সামসুদ্দিন দফাদার জানান, পাচানি গ্রামের কৃষক নজরুল ইসলামের পুত্র তরিকুল ইসলাম ইটভাটায় শ্রমিকের কাজ করতো। বৃহস্পতিবার সকালে ধান ক্ষেতে তরিকুলের গলাকাটা লাশ দেখে এলাবাসি পুলিশকে খবর দেয়। তাৎক্ষনিক খবর পেয়ে কেশবপুর থানা পুলিশ গলাকাটা অবস্তায় লাশ ধান খেত থেকে উদ্ধার করে। পরে লাশ ময়না তদন্তের জন্য যশোর মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহিন জানান, এলাকাবাসির পক্ষে খবর পেয়ে আমি তাৎক্ষনিক ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছি। লাশের গলা কেটে জবাই করা হয়েছে। এছড়া লাশের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারাল অস্ত্রের কোপের চিহ্ন পাওযা গেছে। হত্যার কারন জানা যায়নি তবে পূর্বশত্রুতার কারনে তাকে খুন করা হতে পারে বলে প্রাথমিক ধারনা করা যাচ্ছে। তদন্ত করা হচ্ছে হত্যার কারন ও কারা খুন করেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য যশোর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

প্রিন্স, ঢাকা