প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে কর্মচারীদের অবদান কম নয়: মহাপরিচালক

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষা সরকারি কর্মচারী সমিতি চট্টগ্রাম জেলার কমিটি কর্তৃক অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের অবসরোত্তর সংবর্ধনা, নবগঠিত জেলা কমিটির অভিষেক’১৮ ও প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে কর্মচারীর ভূমিকা- শীর্ষক আলোচনা সভা নগরীর পিটিআই অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

সমিতির সভাপতি পংকজ চক্রবর্ত্তীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি।

বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা চট্টগ্রাম বিভাগের উপ-পরিচালক মোঃ সুলতান মিয়া, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নাসরিন সুলতানা, পিটিআই সুপারিনটেনডেন্ট কামরুন নাহার ও বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষা সরকারি কর্মচারী সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো: আবদুল হালিম। অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয়, বিভাগীয় ও জেলা কমিটির প্রায় ৫’শতাধিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অবসরোত্তর সংবর্ধনা ও জেলা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি বলেন, প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে কর্মচারীর অবদান অনস্বীকার্য। সীমিত জনবল ও নানা সীমাবদ্ধতা থাকা সত্তেও মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কর্মচারীদের নিরলস প্রচেষ্ঠা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার।

কর্মচারীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে প্রাথমিক শিক্ষার মান্নোয়ন হয়েছে। বর্তমান সরকারও বিগত ১০ বছরে প্রাথমিক শিক্ষার সাথে সম্পৃক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কল্যাণে কাজ করেছেন। অনুষ্ঠানে প্রাথমিক শিক্ষার ৪০ জন অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীকে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন প্রধান অতিথি। শেষে জসিম উদ্দীনকে সভাপতি ও মো: নুরুজ্জামালকে সাধারণ সম্পাদক মনোনয়ন দিয়ে ১৯ সদস্য বিশিষ্ট চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটি ও চট্টগ্রাম বিভাগাধীন বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষা সরকারি কর্মচারী সমিতির জেলা কমিটিগুলো ঘোষণা করা হয়। সবশেষ এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রিন্স, ঢাকা