রাবার রিসাইনক্লিন ওয়েল প্লান্টের নতুন উদ্যোগ

হাকিমপুর, দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের হাকিমপুর পৌরসভার এলাকার ড্রেন, ডাস্টবিনসহ যত্রতত্র পড়ে থাকা অপচনশীল আবর্জনা পলিথিন, প্লাষ্টিক,টায়ার সংগ্রহ করে কাজে লাগাচ্ছে ‘হাকিমপুর পৌরসভা প্লাষ্টিক এন্ড রাবার রিসাইনক্লিন ওয়েল প্লান্ট’। পাশাপাশি ওই ওয়েল প্লান্টে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে ২৫ জন শ্রমিকের।

হাকিমপুর পৌরসভা প্লাষ্টিক এন্ড রাবার রিসাইনক্লিন ওয়েল প্লান্ট এর দায়িত্বরত কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ জানান, গাইবান্ধার জেলার গোবিন্দগঞ্জের দীপক মহন্ত ও আব্দুল মতিন হাকিমপুর পৌরসভার ছাতনী রাঙ্গামাটি এলাকায় চলতি বছরের জুলাই মাসে ৩৭ শতক জমির উপর পরিবেশ বান্ধব উপায়ে লাইসেন্স, পরিবেশ অধিদপ্তর ও ফায়ার সার্ভিসের ছাড়পত্র নিয়ে এ ওয়েল প্লান্টের কার্যক্রম শুরু করেন।

বর্তমানে নিজস্ব পরিচ্ছন্ন কর্মী নিয়ে পৌর এলাকার ডাস্টবিন, ড্রেনসহ বিভিন্ন এলাকায় যত্রতত্র পড়ে থাকা পলিথিন, প্লাষ্টিক, টায়ার এবং অপচনশীল আবর্জনা সংগ্রহ করা হয়। পরে মেশিনের মাধ্যমে সেসব আবর্জনা থেকে রাস্তায় ডিজেলে পরিবর্তে ব্যবহৃত গ্রীণ ওয়েল, ইট ভাটায় ব্যবহৃত ব্লক কার্বন কালি ও রড কারখানার কাজে ব্যবহৃত গুনা উৎপাদন করা হচ্ছে। এতে পৌর এলাকার আবর্জনা অপসারনের পাশাপাশি এই কারখানায় ২৫ জন শ্রমিকের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে।

হাকিমপুর পৌরসভার মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত জানান, পৌরসভার বিভিন্ন ড্রেনে পলিথিন আটকে পানি নিস্কাশনে বাধার সৃষ্টি করে। এছাড়া যত্রতত্র অপচনশীল আবর্জনা পড়ে থাকে। যা পরিবেশের জন্য ক্ষতি। হাকিমপুর পৌরসভা প্লাষ্টিক এন্ড রাবার রিসাইনক্লিন ওয়েল প্লান্ট আবর্জনা অপসারনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এটি একটি ভাল উদ্যোগ। নেদারল্যান্ডেও এ আদলে আবর্জনা সংগ্রহ করে কাজে লাগানো হয়।

প্রিন্স, ঢাকা