বিশ্ব বসতি দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১ অক্টোবর বিশ্ব বসতি দিবস উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন: “মিউনিসিপ্যাল সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট’ অর্থাৎ ‘পৌর এলাকার কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও বিশ্ব বসতি দিবস পালন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

জাতিসংঘের উদ্যোগে মানুষের আবাসন সমস্যা নিরসনে কিছু সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে ১৯৮৬ সাল থেকে প্রতিবছর বিশ্ব বসতি দিবস পালন হয়ে আসছে। মানুষের অন্যতম মৌলিক চাহিদা হিসেবে আবাসনের দাবী একটি অনস্বীকার্য বিষয়।

বর্তমান সময়ে কৃষি, শিক্ষা, শিল্প, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, বিদ্যুৎ ও জ্বালানী, স্বাস্থ্যসেবা, বাসস্থানসহ বিভিন্ন খাতে যেমন আমাদের যথেষ্ট উন্নয়ন সাধিত হয়েছে তেমনি এর ফলে সৃষ্ট বর্জ্য ব্যবস্থাপনা একটি বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আধুনিক যুগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়নের ফলে যথেষ্ট পরিমাণ ই-বর্জ্যও সৃষ্টি হচ্ছে। এই সকল বর্জ্যরে সঠিক ব্যবস্থাপনা পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য অপরিহার্য।

বর্তমান সরকার শহরাঞ্চলে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য ইতিমধ্যে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। সলিড ওয়েষ্ট ম্যানেজমেন্ট বা কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ১৫ বছর মেয়াদী ক্লিন ঢাকা মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নের কাজ চলমান আছে। কঠিন বর্জ্যরে ব্যবহার দ্বারা বিদ্যুৎ উৎপাদন এবং বায়োগ্যাস রূপান্তরের বেশ কিছু প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে এবং ভবিষ্যতে আরো ব্যাপক প্রকল্প গ্রহণ করা হবে।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্বপ্ননগর আবাসিক প্রকল্পে সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট, রেইন ওয়াটার হারভেস্টিং এবং রিসাইক্লিং এর কাজ সমাপ্তির পথে। এছাড়াও মাতুয়াইল স্যানিটারি ল্যান্ডফিল স্থাপনের বিশাল প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে যেখানে বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন, কম্পোস্ট প্ল্যান্ট স্থাপনসহ অন্যান্য সুবিধা থাকবে। মেডিকেল বর্জ্যসহ সকল প্রকার কঠিন বর্জ্য সংগ্রহ ও ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়নেও বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ে তোলার জন্য সকল ধরনের কঠিন বর্জ্যরে ব্যবস্থাপনার প্রতি আমাদের আরো যত্নবান হতে হবে। বর্জ্য ব্যবস্থাপনার এই গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের জন্য আমি সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

আমি ‘বিশ্ব বসতি দিবস ২০১৮’ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।
জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

প্রিন্স, ঢাকানিউজ২৪