নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র হলে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে: নাসিম

নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, যাদের কোনো নীতি-আদর্শ নেই তারই ঐক্যের নামে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চায়। আসন্ন সংসদ নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী, শেখ হাসিনার অধীনে। নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র হলে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।

নির্বাচন বানচালের চক্রান্ত থেকে সরে আসতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে নাসিম বলেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে অস্থিরতা সৃষ্টি করার চেষ্টা না করে নির্বাচনে আসুন। পানি ছাড়া যেমন মাছ বাঁচে না, তেমনি নির্বাচন ছাড়াও রাজনৈতিক দল বাঁচে না। ২০১৪ সালের নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে যে ভুল করেছিলেন, আশা করি এবার তা করবেন না। ভুলের পুনরাবৃত্তি করলে অস্তিত্ব বিলীন হয়ে যাবে। আর ফাউল করলে নির্বাচনে জনগণ লাল কার্ড দেখাবে।

শুক্রবার কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নাসা গ্রুপ কর্তৃক নির্মিত ৬০ শয্যাবিশিষ্ট মা ও শিশু হাসপাতালের উদ্বোধনী শেষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সংবিধান অনুযায়ী শেখ হাসিনার অধীনেই আগামী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সংবিধানের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। তাই নির্বাচন নিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ ধরার চেষ্টা করে কোনো লাভ হবে না। উন্নয়ন দিয়েই আওয়ামী লীগ জনগণের মন জয় করেছে। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের জোয়ারে আগামী নির্বাচনেও দেশের জনগণ আওয়ামী লীগকেই বিজয়ী করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

কক্সবাজার সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন আব্দুর রহমান বদি এমপি, সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল) বাবলু কুমার সাহা, উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ হামিদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী প্রমুখ।

পরে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে সন্ধানী কেন্দ্রীয় কমিটির ৩৮তম অর্ধবার্ষিক সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নির্বাচনের আগেই কক্সবাজারে একটি ৫শ’ শয্যার হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সন্ধানীর জন্য একটি অ্যাম্বুলেন্স প্রদানের ঘোষণা দেন তিনি।

সন্ধানী কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সফিউল মুকিতের সভাপতিত্বে সম্মেলনে মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. সুভাষ চন্দ্র সাহা, সন্ধানীর সাবেক নেতা অধ্যাপক ডা. মনিলাল আইচ লিটু, সিভিল সার্জন ডা. আব্দুস সালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।