কলকাতা আর ঢাকায় কাজে কোন ফারাক দেখি না: ইন্দ্রনীল

নিউজ ডেস্ক: টালিউড ও বলিউডে সমানতালে কাজ করছেন অভিনেতা ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত। বাংলাদেশেও রয়েছে তার জনপ্রিয়তা। কয়েক বছর আগে বাংলাদেশে ‘চোরাবালি’ ছবিতে কাজ করেন তিনি। এরপর সবশেষ তাকে ‘সম্রাট’ ছবিতে দেখা যায়। মাঝে চলে গেছে দীর্ঘ সময়। তবে ফের তিনি ফিরছেন ঢাকাই ছবিতে। বুধবার সোয়াইবুর রহমান রাসেলের নতুন ছবি ‘নন্দিনী’র শুটিংয়ে ঢাকায় এসেছেন তিনি।

‘নন্দিনী’র জন্য টানা ১০দিন শিডিউল দেওয়া তার। শুটিং শেষ করেই মুম্বাই ফিরবেন বলে জানালেন এ তারকা।

এটি তার বাংলাদেশে তৃতীয় ছবি। কেমন লাগে এদেশের ছবিতে কাজ করতে? ইন্দ্রনীল বলেন, ”সর্বশেষ মোস্তফা কামাল রাজের ‘সম্রাট’ শুটিং করতে এসেছিলাম। কাজ ছাড়া তো আর আসা হয়না। এবারও নতুন ছবি নন্দিনীর শুটিং করতে এলাম। আমি তো বাঙালি। তাই কলকাতা আর ঢাকায় কাজের মধ্যে কোন ফারাক দেখি না। এখানকার মানুষের আতিথিয়তা আমাকে মুগ্ধ করে।”

বাংলাদেশি লেখক পরিতোষ বাড়ৈর ‘নরক নন্দিনী’ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মাণ হচ্ছে ‘নন্দিনী’ ছবিটি। ছবিতে কীভাবে যুক্ত হলেন- জানতে চাইলে ‘কলকাতার অটোগ্রাফ’খ্যাত এ নায়ক বলেন, ‘ছবির পরিচালক ও প্রযোজক গল্পটি নিয়ে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তারা মনে করেছেন ছবির একটি চরিত্রে আমি ভালো পারবো। আমারও নন্দিনীর চিত্রনাট্য ও বাকি সব পছন্দ হয়েছে। এমন চরিত্রে আমি এর আগে কখনই অভিনয় করিনি। এটি ভিন্ন রকমের ভালোবাসার গল্প। আমার জন্য চ্যালেঞ্জিং মনে করেই কাজটি করছি।’

কলকাতায় ৩০টির বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন ইন্দ্রনীল। কিন্তু কয়েক বছর ধরে কলকাতার ছবিতেও তাকে তেমন একটা দেখা যাচ্ছে না। একথা তুলতেই ইন্দ্রনীল বলেন, ‘আমি থাকি মুম্বাইয়ে। সেখান থেকে এসে কলকাতায় কাজ করতে হয়। আমার মেয়েটাও বড় হচ্ছে। তাকে সময় দিতে হয়। তাই মুম্বাইয়ে টেলিভিশনের কাজগুলোই বেশি করছি। আর কলকাতায় কেবল কাজের ডাক পেলেই আসি। তাছাড়া তেমন একটা আসা হয় না। পাশাপাশি যাদের সঙ্গে কাজ করেছি, তাদের কখনও কাজের জন্য আমি অনুরোধও করিনা। এই জন্যই হয়তো আমাকে এখন কলকাতার ছবিতে কম দেখতে পান।’

কিন্তু আপনি তো কলকাতার অনেক বড় বড় নির্মাতার ছবিতে কাজ করেছেন। হতে পারে গল্পের আর্টিস্ট নির্বাচন করার সময় আপনার কথা মাথায় থাকে না। আপনি তো তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে পারেন? জবাবে ইন্দ্রনীল বলেন, ”আমি এটা পারি না। চরিত্র নির্বাচন করার সময় আমাকে মাথায় না রাখা মানে, আমি সেই চরিত্রের যোগ্য নই। তারপরও আমি বললে হয়তো তারা চরিত্র দিবে। তাহলে সেটা আমার যোগ্যতা দেখে নয়, অনুরোধে। তাই কাজের জন্য কারও সঙ্গে যোগাযোগ করি না। এটা ‘ইগো প্রবলেম’ বলতে পারেন! তবে আমি যাদের সঙ্গে কাজ করেছি বা করছি তাদের সবার সঙ্গেই আমার ভালো সম্পর্ক রয়েছে।”

পরিচালক জানিয়েছেন নন্দিনীর পুরো অংশের শুটিং হবে বাংলাদেশে। আগামী ঈদে ছবিটি মুক্তি পেতে পারে। এতে আরও অভিনয় করছেন ফজলুর রহমান বাবু, ইরেশ যাকের, মুনিরা ইউসুফ মেমী, জয়শ্রী কর জয়া, ইলোরা গহর প্রমুখ।