অনিশ্চয়তায় তাদের ছবি

নিউজ ডেস্ক: বেশ ডাকঢোল পিটিয়ে মহরত হলে শাকিব খান অভিনীত দুটি ছবি অনিশ্চয়তার মুখেই পড়েছে। ছবি দুটো অদৌ শুরু হবে কী না সে প্রশ্নই এখন শাকিব ভক্তদের। এর মধ্যে রয়েছে নতুন জুটি শাকিব খান নুসরাত ফারিয়ার ‘শাহেনশাহ’ ও শাকিব-বুবলীর ‘মাননীয় সরকার একটা প্রেম দরকার’।

দুটি ছবিই প্রযোজনা করার কথা রয়েছে শাপলা মিডিয়ার। বেশ আয়োজন করে রাজধানীর একটি পাঁচতারা হোটেলে মহরত হয় ছবি দুটির।  দুটি ছবির জন্যই আয়োজন করে দুইজন নায়িকাকেও পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। 

‘মাননীয় সরকার একটা প্রেম দরকার’ ছবির মহরতে শাকিব-বুবলী

এর মধ্যে মাননীয় সরকার একটা প্রেম দরকার ছবিটি পরিচালনা করবেন শাহিন সুমন। ২৬ জুন মহরত হওয়া ছবিটির শুটিং শিগগিরই শুরু হবে বলে জানিয়েছিলেন পরিচালক ও প্রযোজক। কিন্তু সে ‘শিগগিরই’ বলা আর শেষ হয়নি এখনও। ছবিটির প্রযোজক সেলিম খানের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘ছবিটি শুরু হবে। তবে এখনই নিশ্চিত করে তারিখ জানাতে পারছি না। আমরা এখন অন্য ছবির কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি।’

অন্যদিকে  শামীম আহমেদ রনি পরিচালনা করবেন  ‘শাহেনশাহ’। এ ছবিতে ছবিতে প্রথমবারের মতো শাকিব খানের বিপরীতে চুক্তিবদ্ধ  নুসরাত ফারিয়া। একইসঙ্গে এই ছবির মাধ্যমে রোদেলা জান্নাতের অভিষিক্ত হওয়ার কথা।

প্রথমে কথা ছিল ২৪ আগস্ট এফডিসিতে সেট ফেলে একটি গানের শুটিং দিয়ে শুরু হবে ‘শাহেনশাহ’। পরে সেটি পিছিয়ে ২৮ আগস্ট থেকে কক্সবাজারে শুটিং করার সিদ্ধান্ত নেন পরিচালক। পরে সে তারিখও বদলে ৮ সেপ্টেম্বর থেকে পুবাইলে শুটিং শুরু করার কথা। কিন্তু সেটিও হয়নি

শেষ পর্যন্ত ফারিয়াকে জানানো হয় ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে টানা শুটিং চলবে। কিন্তু গতকাল পর্যন্তও ক্যামেরা ওপেন করতে পারেননি পরিচালক। এর আগে ১৭ তারিখের বিষয়টি হলফ করে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছিলেন পরিচালক শামীম আহমেদ রনী।

ছবিটিতের অভিনয় করার কথা রয়েছে একজন নবাগতার। রোদেলা জান্নাত নামের ওই নবাগতা বলছেন, আমি শাহেন শাহ ছবিতে অভিনয়ের জন্য অপেক্ষা করছি। কিন্তু কেন পেছাচ্ছে এই ছবির শুটিং-এর তারিখ।

এর আগে ছবিটির প্রযোজক খান সমকাল অনলাইনকে বলেছিলেন, কয়েকদিনের মধ্যেই শুটিং এর তারিখ জানানো হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত শুটিং নিয়ে কোনও কথা শোনা যাচ্ছে না। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা জানাতে পারছেন না ছবির শুটিং তারিখ। এমন অবস্থায় স্বাভাবিক ভাবেই এই ছবি নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।  

ছবিটির শুটিং শুরু নিয়ে ফারিয়া বলেন, এক মাস ধরে ছবিটির জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি। জানি না কোন কারণে বারবার শুটিং পেছাচ্ছে। তবে শুনেছি, প্রযোজক ব্যস্ত সময় পার করছেন বলে প্রডাকশনের দিকে নজর দিতে পারছেন না। এখন অপেক্ষা করা ছাড়া উপায়ও নেই।’

সূত্র: সমকাল