যানজট,জলজট ও ময়লাজট এই ৩ জটে অতিষ্ঠ নগরবাসী!

জাহিদুল ইসলাম জাহিদঃ প্রাচীন ও পুরানো শহর হিসাবে ময়মনসিংহ এক দিকে যেমন দেশের মানুষের কাছে বেশ পরিচিত।তেমনি অপর দিকে ময়মনসিংহে এমন কিছু ইতিহাস, প্রতিষ্ঠান, দর্শনীয় স্থান আছে যা সারা দেশ ব্যাপী মানুষের কাছে অতি জনপ্রিয়।

দেশের অষ্টম বিভাগীয় এই শহরের মানুষের প্রধান সমস্যা আজ যানজট,জলজট ও (ময়লাজট) যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা।ময়মনসিংহ পৌরসভার পক্ষ থেকে জলজট নিষ্কাশনের, এবং ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার গুরুত্বপূর্ণ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করলেও মানুষের সচেতনতার অভাবে ময়লা-আবর্জনা তেমন একটা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন হচ্ছে না। মানুষ বাসা/বাড়ির ময়লা আবর্জনা রাস্তা-ঘাট,ড্রেনসহ যত্রতত্র ফেলে রাখছে।

অপরদিকে যানজট নিরশনে নেই কোন আশু পদক্ষেপ।ময়মনসিংহ শহরের প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে/মোড়ে এমনকি ফোর লেনের রাস্তা থাকার পররেও সব সময় যানজট লেগেই থাকছে।আর এই যানজটে মানুষের দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে।যান জট শুরু হয় বিশেষ করে শহরে ঢোকার আগে চায়নার মোড়,পাটগুদাম ব্রীজ মোড় ও শহরের গাঙ্গিনারপাড় মোড়, চরপাড়া টাইমস্ স্কয়ার মোড়,হসপিটাল গেট এলাকাসহ যানজটে মানুষের জীবন অতিষ্ঠ।অপরিকল্পিত এই শহরায়ণ ভবিষ্যতে আরও ভয়াবহ সঙ্কট তৈরি করবে। আর এখন বাস্তবতা হচ্ছে নিয়ন্ত্রণহীন যানবাহন যেমন- অটোরিকশা,সিএনজি চালিত অটোরিকশা,ব্যাটারী চালিত রিকশা,বেবীটেক্সী,টেক্সীক্যাব, মিনিবাস ও মালবাহী ট্রাক।যানজটে ময়মনসিংহের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থাকে জটিল ও কঠিন করে তুলেছে।

ময়মনসিংহ শহরের পাটগুদাম ব্রীজ মোড়ের জ্যামে অসহনীয় অবস্থার মুখে পড়তে হয় যাত্রীদের।প্রতিদিন দীর্ঘ সময় এখানে জ্যাম থাকে।স্থানীয় ট্রাফিক পুলিশ এখানে কিংকর্তব্যবিমুঢ় হয়ে পড়েন ।

ট্রাফিক ম্যানেজম্যান্টের সমস্ত আয়োজন, কৌশল এবং প্রস্তুতিই ভেস্তে পড়ে ছোট-বড় এসব যানবহণের লাগাতার লাইন আর যানজটের বিরতিহীন চলাচলে।
এক সর্বাত্মক অরাজকতা এখন শহরের প্রতিটি রাস্তা-ঘাটে মানুষের পায়ে হেঁটে চলাও অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।শহরের ফুটপাত গুলোতে বসেছে বিভন্ন পণ্যের দোকান,যানজট আজ মানুষের কর্মব্যস্ত জীবনকে স্থবির করে তুলেছে।তাই এই যানজট,জল জট ও ময়লা জটের কবল থেকে মুক্তি চায় নগরবাসী।পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন,স্বাস্থ্য সম্মত, নির্মল বাতাসের নগরী গড়তে এই ৩ জট আজ প্রধান বাঁধা হয়ে দাড়িয়েছে।