মেধা বিকাশের জন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা করতে হবে: ফজলে করিম

রাউজান প্রতিনিধি: রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি বলেছেন ‘রাউজানের পৌরসভাসহ সকল ইউনিয়নের খেলার মাঠে খেলাধুলা চালু রাখতে হবে। মাঠে খেলাধুলার জন্য কোন প্রকার অনুমতি নিতে হবে না। যেখানে মাঠ সেখানে খেলাধুলা চলবে। আমি চাই রাউজান থেকে বিশ্বমানের খেলোয়াড় সৃষ্টি হোক। তিনি আরো বলেন, রাউজানে সম্প্রতি পুকুরে ডুবে ৪২ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তাই রাউজানের প্রতিটি শিক্ষার্থীকে সাঁতার শিখানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। যাতে আর কোন শিশুর মৃত্যু না হয়।

শিশুদের মেধা বিকাশের জন্য পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলা করতে হবে।’ সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টায় রাউজান আর আর এসি মডেল হাই স্কুল মাঠে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে (অনুর্ধ্ব-১৭) পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রাউজান উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত এই টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন হলেন বীর শ্রেষ্ঠ মুন্সি আবদুর রউফ ফুটবল একাদশ (পৌরসভা-১)।

খেলায় ট্রাইবেকারে ৫-৪ গোলে পরাজিত হয়ে রানার্স আপ হলেন মহাকবি নবীন সেন ফুটবল একাদশ (ডাবুয়া ইউনিয়ন)। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম হোসেন রেজা’র সভাপতিত্বে খেলার পুরস্কার বিতরণী সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী কমিশনার (ভুমি) জোনায়েদ কবির সোহাগ, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল উদ্দিন।

বক্তব্য রাখেন রাউজান থানার ওসি কেপায়েত উল্লাহ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফৌজিয়া খানম মিনা, বশির উদ্দিন খান, জমির উদ্দিন পারভেজ, সৈয়দ আব্দুল জব্বার সোহেল, আব্দুর রহমান চৌধুরী, রোকন উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্বাস উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম, ভূপেষ বড়–য়া, সুকুমার বড়–য়া, লায়ন সাহাবুদ্দিন আরিফ, নুরুল ইসলাম বাশিসহ পৌর প্যানেল মেয়রবৃন্দ কাউন্সিলরবৃন্দ, উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তাবৃন্দ। চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ উভয় দলকে একলক্ষ টাকা করে পুরস্কার ঘোষণা দেন প্রধান অতিথি। এছাড়াও চ্যাম্পিয়ন দলকে এক তোলা স্বর্ণ খচিত ট্রপি ও ১০ হাজার টাকার প্রাইজমানি এবং রানার্স আপ দলকে আধা তোলা স্বর্ণখচিত ট্রপি ও পাঁচ হাজার টাকার প্রাইজমানি প্রদান করা হয়।

প্রিন্স, ঢাকার