প্যারোলে মুক্তি পেয়েছেন নওয়াজ ও তার মেয়ে

নিউজ ডেস্ক: কারাগারে থাকা পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ, তার মেয়ে মরিয়ম শরিফ ও মরিয়মের স্বামী অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ সাফদার প্যারোলে মুক্তি পেয়েছেন।

মঙ্গলবার নওয়াজ শরিফের স্ত্রী কুলসুম নওয়াজের মৃত্যুর পর রওয়ালপিণ্ডির আদিয়ালা কারাগার থেকে ১২ ঘণ্টার জন্য তাদেরকে মুক্তি দেওয়া হয়। পাঞ্জাবের স্বরাষ্ট্র বিভাগের এক আদেশে তাদেরকে মুক্তি দিয়ে নূর খান বিমান ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হয় এবং পরে সেখান থেকে লাহোরে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রাক্তন ফার্স্ট লেডি কুলসুম নওয়াজ দীর্ঘদিন ক্যান্সারে ভুগছিলেন এবং গত কয়েক মাস লন্ডনের হার্লে স্ট্রিট ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। গত বছরের আগস্টে কুলসুমের লিমফোমা (গলার ক্যন্সার) ধরা পড়ে। তাকে কয়েক দফা কেমোথেরাপি ও রেডিওথেরাপি দেওয়া হয়। মঙ্গলবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

তবে নওয়াজ শরিফ, মেয়ে মরিয়ম শরিফ ও জামাই মোহাম্মদ সাফদার প্রথমে ১২ ঘণ্টার জন্য মুক্তি পেলেও তাদের প্যারোলের মেয়াদ বাড়তে পারে। বেগম কুলসুম নওয়াজকে আগামী শুক্রবার জাতি উমরায় দাফন করা হবে। সে পর্যন্ত প্যারোলের মেয়াদ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে পাঞ্জাব সরকার সূত্র জানিয়েছে।

আগামী বৃহস্পতিবার কুলসুম নওয়াজের মরদেহ লন্ডন থেকে লাহোরে আনা হবে। এর আগে আজ বুধবার কুলসুমের জন্য লন্ডনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

নওয়াজ শরিফসহ তিনজনের প্যারোলে মুক্তির জন্য পিএমএল-এন সভাপতি ও তার ভাই শাহবাজ শরিফ আবেদন করেন। তিনি কমপক্ষে পাঁচ দিনের মুক্তি দেওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন।

এদিকে, পিএমএল-এন জাতি উমরাকে সাব-জেল হিসেবে ঘোষণা করার জন্য আরেকটি আবেদন দাখিল করবে বলে জানা গেছে।

তথ্য : ডন নিউজ