ব্রুনাইতে বিনিয়োগের আহবান বাংলাদেশিদের

সুমন দত্ত: বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের দ্বীপ দেশ ব্রুনাইতে বিনিয়োগের আহবান জানিয়েছেন সফররত দেশটির বাণিজ্যিক প্রতিনিধি দল। ব্রুনাইয়ের পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য বিষয়ক মন্ত্রী মিসেস সিটি নরিশান আবদুল গফুর প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন।

রবিবার দুপুরে ব্যবসায়ীদের বৃহৎ সংগঠন এফবিসিসিআই প্রধান কার্যালয়ে আসেন তিনি। সাক্ষাৎ করেন এফবিসিসিআই সভাপতি মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিনের) সঙ্গে। এ সময় ব্রুনাই প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির হাইকমিশনার এইচ ই হাজা মাসুরি মাসরি।

ব্রুনাই প্রতিনিধিরা বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের দেশটিতে বিনিয়োগের আহবান জানিয়ে একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন করেন। ব্রুনাই ইকোনোমিক ডেভেলপমেন্ট বোর্ড অন ইনভেস্টমেন্ট প্রতিনিধি ফেরদৌস হাজি আবদুল কাদির এতে সহায়তা করেন।ব্যবসার জন্য ব্রুনাই কেন উত্তম। তার বর্ণনা দেন তিনি।

এরপর প্রবাসী এক বাংলাদেশি ড. নুর রহমান ব্রুনাইতে তার দায়িত্ব পালনের কথা বলেন। দেশটির রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানে থেকে বিদেশিরা কি কি সুযোগ সুবিধা পায় তার বর্ণনা দেন তিনি। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা ব্রুনাইয়ের টেক্সটাইল খাতে, ওষুধ ও খাদ্য শিল্পে বিনিয়োগ করতে পারে।

আসিয়ানের এক সদস্য দেশ হওয়ায় ব্রুনাইতে বিনিয়োগ করলে ব্যবসায়ীরা তাদের পণ্য আসিয়ানভূক্ত দেশগুলোতে রপ্তানি করতে পারবে।

সুলতান শাসিত ব্রুনাই রাজনৈতিকভাবে স্থিতিশীল। দেশটির অর্থনীতি খনিজ সম্পদ তেল ও গ্যাসের ওপর নির্ভরশীল। তবে বাজার ছোট। কিন্তু প্রস্তুতকারী দেশ হিসেবে দেশটি বাংলাদেশের বিনিয়োগ চায়। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা ব্রুনাইতে হালাল মাংস রফতানি করতে পারে। যেটা বর্তমানে ভারত করে থাকে। এছাড়া পাট জাত দ্রব্য ব্রুনাইতে রফতানি করতে পারে। ব্রুনাই থেকে হালাল খাদ্য বেভারেজও আমদানি করতে পারে বাংলাদেশ এসব কথা জানালেন ড. নুর রহমান।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম