তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজে নবীনবরণ

খাগড়াছড়ি পরতিনিধি: পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ অনু্ষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার ৮আগষ্ট সকাল ১১টার দিকে বর্ণিল সাজে সজ্জিত তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ শ্রেণিকক্ষে এই নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়।

তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজের প্রভাষক মো:হাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন,তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতিও মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র শামছুল হক।

প্রধান অতিথিকে ফুল দিয়ে বরণ করেন তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো:জাকির হোসেন।

বড়নাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওতবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ পরিচালনা কমিটির নির্বাহী সদস্য মো:আলী আকবর, তবলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানও তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ পরিচালনা কমটির নির্বাহী সদস্য মো:আব্দুল কাদের, তাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওতবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ পরিচালনা কমিটির নির্বাহী সদস্য মো:হুমায়ন কবির, তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজের সিনিয়র প্রভাষক মো:আবু তাহের, তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজের প্রভাষক অন্তরিকা চাকমা প্রমুখ, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন।

অন্যান্যের মাঝে উপস্হিত ছিলেন, তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ পরিচালনা কমিটির সাবেক নির্বাহী সদস্য মো:সোলমান, মাটিরাঙ্গা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মো:জসিম উদ্দিন জয়নাল, তাইন্দং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল লতিফ, মো:হানিফ মেম্বার, আবুল বশার মেম্বার, বীর মুক্তিযোদ্ধা ধনমিয়া

স্বাগত বক্তব্য রাখেন, তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো:জাকির হোসেন তিনি বলেন তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ প্রতিষ্টিত হয় ২০০৯সালে দীর্ঘ ৯বছর পর কলেজের সভাপতি মো:শামছুল হকের সু -পরিকল্পনায় আমরা তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজের একাডেমিক স্বীকৃতি প্রাপ্তি সম্ভব হয়েছে একমাএ ভাপতির অক্লান্ত পরিশ্রমের কারনে তিনি একজন অএ উপজেলার সফল শিক্ষা বান্ধব বলে মন্তব্য করেন।

তবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পৌর মেয়র ওতবলছড়ি গ্রীনহিল কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি বলেন, শিক্ষার জন্য ছাত্র, শিক্ষক, অভিবাবক এই তিনের সমন্বয়ে শিক্ষা ব্যবস্হা পরিচালিত করতে হবে। ছাত্রদের লেখাপড়ার প্রতি মনোযোগী
হতে হবে। শিক্ষকদের এগিয়ে আসতে হবে ছাত্রছাত্রীদের যথাযত শিক্ষা দেওয়ার জন্য।

অভিভাবককে তাদের সন্তানের পরিচর্যা করতে হবে। আজকের শিক্ষার্থীরা নিজেদেরকে ভবিষ্যতে সুশিক্ষিত করে দেশ ও জাতি গঠনে প্রয়োজনীয় ভূমিকায় রাখবে।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, বর্তমানে প্রধানমন্রীর স্লোগান মানস্মত শিক্ষা প্রধানমন্রীর দীক্ষা শুধু পাস করলে হবেনা সবাইকে মানস্মত শিক্ষা অর্জন করতে হবে। নিজের মেধাকে কাজে লাগিয়ে দেশের সেবা করতে হবে।

অতিথিদের সাথে নিয়ে নবীন ছাত্রছাত্রীদের হাতে একটি রজনীগন্ধা ফুল দিয়ে বরণ করেন। পরে কলেজে ২০১৮ সালে এইচ এস সি পরীক্ষায় জিপি ৫পাওয়া কৃতি শিক্ষার্থীর মাঝে পুরুস্কার তুলেদেন প্রধান অতিথি।

প্রিন্স, ঢাকা