চট্টগ্রামে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমীর বর্ণাঢ্য আয়োজন

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: নানা বয়সী ভক্তের ঢল নেমেছিল সকাল থেকে। শিশু-কিশোরদের আকর্ষণীয় সাজের মধ্য দিয়ে ফুটে ওঠে শ্রীকৃষ্ণের জীবনের নানা ঘটনাবলি। প্রধান প্রধান সড়কের দুই পাশে হাজারো মানুষের অপেক্ষা। এভাবে বর্ণাঢ্য আয়োজনে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হলো ‘ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী’র মহাশোভাযাত্রা। নগরীর আন্দরকিল্লা মোড়ে শ্রীশ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ বাংলাদেশ আয়োজিত এ শোভাযাত্রার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সিলেটের মহাপ্রভু অঙ্গনের অধ্যক্ষ রাধা বিনোদ মিশ্র।

গতকাল রোববার সকাল থেকে মিনি ট্রাক, পিক-আপসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহনে শ্রীকৃষ্ণ ভক্তরা জড়ো হন জেএম সেন হল, আন্দরকিল্লা ও আশপাশের এলাকায়। এরপর তারা সুশৃঙ্খলভাবে অংশ নেন মহাশোভাযাত্রায়। শোভাযাত্রার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পরিষদের সহ-সভাপতি অলক দাশ। জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের কর্মকর্তা লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্য্যরে সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমীর আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এস.এম মোস্তাইন হোসাইন, জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দে, সাবেক সভাপতি ও রাউজান পৌরসভার মেয়র দেবাশীষ পালিত, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার, বিএফইউজের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, কাউন্সিলর নিলু নাগ প্রমুখ।

বিমল কান্তি দে বলেন, শ্রীশ্রী গীতা ও শ্রীমদ্ভাগবতের মহান প্রবক্তা পুরুষ, সনাতন ধর্মের প্রাণপুরুষ, মধ্যযুগের বাংলা সাহিত্যের অশেষ প্রেরণাময় ভাবসঞ্চারী শ্রীকৃষ্ণ আজ থেকে ৫২৪৫ বছর আগে দ্বাপর যুগের ক্রান্তিলগ্নে পৃথিবীতে অবতীর্ণ হয়ে দানবকুলের কুটিল ধূ¤্রজাল ও সংকটাবর্ত ধ্বংস করে তদানীন্তন সামাজিক ও ধর্মীয় অস্তিত্বকে রক্ষা করেছিলেন। তারই আধ্যাত্মিক ও সমাজকল্যাণমুখী কর্মকাণ্ডের স্মারক অনুষ্ঠান জন্মষ্টমী মহোৎসব যা মধুরতম যোগলীলার ভাব উদ্দীপক। ৩৬ বছর ধরে চট্টগ্রামে এ উৎসব হয়ে আসছে। এবার মহোৎসবের কর্মসূচিতে রয়েছে রোববার দুপুরে মাতৃসম্মেলন।

উদ্বোধন করবেন রামকৃষ্ণ মিশনের অধ্যক্ষ শক্তিনাথানন্দজী মহারাজ। বিকেল তিনটায় ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিকেল পাঁচটায় সনাতন ধর্মমহাসম্মেলন, মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বলন করবেন ঋষিধাম ও তুলসীধামের মোহন্ত মহারাজ সুদর্শনানন্দ পুরী মহারাজ, উদ্বোধন করবেন কৈবল্যধামের মোহন্ত মহারাজ অশোক কুমার চট্টোপাধ্যায়, রাতে জন্মাষ্টমী পূজা, ষোড়শপ্রহরব্যাপী মহানাম সংকীর্তনের শুভ অধিবাস, আজ সোমবার ভোর থেকে অহোরাত্রি মহানাম সংকীর্তন শুরু। সকাল নয়টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, চোখ পরীক্ষা ও ব্লাড গ্রুপিং। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর ব্রাহ্ম মুহূর্তে মহানাম সংকীর্তনের সমাপন। প্রতিদিন দুপুর ও রাতে মহাপ্রসাদ বিতরণ।

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে নিরাপত্তার বিষয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান বলেন, জন্মাষ্টমী উপলক্ষে পুলিশের পক্ষ থেকে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নিয়মিত ফোর্সের পাশাপাশি সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যসহ প্রায় ৫০০ পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

শঙ্কর মঠ ও মিশন ঃ ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে গতকাল রোববার সকাল ১১টায় সীতাকুÐ শঙ্কর মঠ ও মিশনের পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম নগরীতে বর্ণাঢ্য মহাশোভাযাত্রা বের করা হয়। নগরীর আন্দরকিল্লাস্থ ঐতিহাসিক জেএমসেন হল থেকে বের করা মহাশোভাযাত্রাটি আন্দরকিল্লা, লালদীঘি, কোতোয়ালী মোড়, নিউমার্কেট চত্বর, রাইফেল ক্লাব, নন্দনকানন, বৌদ্ধ মন্দির ও চেরাগিপাহাড় ঘুরে পুনরায় জেএমসেন হলে গিয়ে শেষ হয়। শঙ্কর মঠ ও মিশনের পক্ষে মহাশোভাযাত্রায় অংশ নেন শ্রীমৎ সন্তোষানন্দ ব্রহ্মচারী, অধ্যাপক কেশব কুমার চৌধুরী, সুলাল কান্তি চৌধুরী, রঞ্জিত মল্লিক, দীলিপ শীল, সমীর কান্তি পাল, অধ্যাপক বন গোপাল চৌধুরী, অনিল শীল, অজিত কুমার শীল, মিন্টু পাল, সাংবাদিক রনজিত কুমার শীল, মিন্টু শীল, আশীষ পাল, মাদল মল্লিক, মিলন চৌধুরী, লিটন পাল, চিত্তরঞ্জন শীল শিবু ও স্বপন গুপ্ত প্রমুখ।

বাংলাদেশ বৈদিক পরিষদ ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে গতকাল রোববার সকাল ১১টায় বাংলাদেশ বৈদিক পরিষদ কেন্দ্রীয়, চট্টগ্রাম জেলা, মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলার পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম নগরীতে এক বর্ণাঢ্য মহাশোভাযাত্রা বের করা হয়। নগরীর ঐতিহাসিক জেএমসেন হল থেকে বের করা মহাশোভাযাত্রাটি আন্দরকিল্লা, লালদীঘি, কোতোয়ালী মোড়, নিউমার্কেট চত্বর, রাইফেল ক্লাব, নন্দনকানন, বৌদ্ধ মন্দির ও চেরাগিপাহাড় ঘুরে পুনরায় জেএমসেন হলে গিয়ে শেষ হয়। মহাশোভাযাত্রায় অংশ নেন বৈদিক পরিষদের পক্ষে অধ্যাপক স্বদেশ চক্রবত্তী, অরুন কান্তি মল্লিক, ডা: নারায়ন মজুমদার, শিক্ষক মানিক চন্দ্র বৈদ্য, এড, তৃষ্ণা ভট্টাচার্য, অধ্যাপক প্রিয়তোষ চৌধুরী, মিলন রুদ্র, তারানাথ চক্রবত্তী, অধ্যাপক জনার্দন বনিক, দোলন দাশ, এডভোকেট নিরঞ্জন কুমার চৌধুরী, জিকু দত্ত, ডা: বাবুল চৌধুরী, ব্যাংকার নারায়ন কান্তি দাশ, লিটন দাশ, অঞ্জন চৌধুরী, শিক্ষক রাজশ্রী মজুমদার চৌধুরী, অধ্যাপক পাভেল দাশ, অধ্যাপক মনোজ দেব, যুবরাজ মল্লিক, বিপ্লব চৌধুরী, বাবুল দাশ, শিমুল দেব, শ্যামল দেব দাশ, এসমিক চক্রবর্তী, সৌরভ দেবনাথ, ইডেন দত্ত, আশীষ চৌধুরী, উজ্জ্বল সেন, বিভাস দাস, খোকন দাশ প্রমুখ।

প্রিন্স, ঢাকা