ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রে জাকারিয়ার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নিউজ ডেস্ক: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’কে হত্যার ষড়যন্ত্রকারী বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত আইএস সমর্থক নাইমুর জাকারিয়া রহমানের যাবজ্জীবন  কারাদণ্ড হয়েছে।শুক্রবার তাকে একজন ‘অত্যন্ত বিপজ্জনক ব্যক্তি’ হিসেবে বর্ণনা করে এই কারাদণ্ড দেন দেশটির একটি আদালত। 
 
গত মাসে লন্ডনের ওল্ড বেইলি আদালত তাকে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রবেশদ্বারে বোমা হামলা চালানোর পরিকল্পনা করার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করে। এরপর শুক্রবার আদালত তার শাস্তি নির্ধারণ করে। সরকারী আইনজীবীরা জানান, বোমা হামলার পরিকল্পনাসহ প্রবেশদ্বারের রক্ষীদের হত্যা করে মে’কে একটি ছুড়ি বা বন্দুক দিয়ে হত্যার ইচ্ছা ছিল তার।
 
২১ বছর বয়সী নাইমুরকে গত নভেম্বরে একটি ‘ব্যাকপ্যাক’ সংগ্রহের পর গ্রেফতার করা হয়। নাইমুরের ধারণা ছিল, ওই ব্যাকপ্যাকটিতে অপর একজন আইএস সদস্যের পাঠানো বিস্ফোরক রয়েছে। বিস্ফোরক পাঠানো ওই ব্যক্তিকে আইএস সদস্য ভেবে তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল নাইমুর। তবে আদতে এই ব্যক্তি ছিলেন, ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থার একজন এজেন্ট।
 
আইনজীবীরা জানান, গ্রেফতারের আগে নাইমুরকে মৌলবাদিতা সংশোধনী বিষয়ক একটি সরকারি কর্মসূচিতে অংশ পাঠানো হয়। তবে তা সত্ত্বেও নাইমুর দুই বছর ধরে হামলার পরিকল্পনা করে।
 
আইনজীবীরা আরো বলেন, নাইমুরের দুই চাচা বিরুদ্ধে ব্রিটেনে সন্ত্রাসবাদ অর্থায়নের অভিযোগে কারাদণ্ড ভোগ করছেন। এছাড়া অপর এক চাচা সিরিয়ায় এক ড্রোন হামলায় মারা গেছেন। 
 
বিচারক চার্লস হ্যাডন-ক্যাভ নাইমুরকে শাস্তিস্বরূপ যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। এর মধ্যে ৩০ বছর কোন ‘প্যারোল’ বা শর্তাধীন মুক্তির সুযোগ নেই তার।-সিবিসি