বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শহরের রেলগেটস্থ দলিয় কার্যালয়ে স্থানীয় বিএনপি আজ শনিবার সকালে জাতীয় ও দলিয় পতাকা উত্তোলন করেন। পতাকা উত্তোলন শেষে দলিয় কার্যালয়ের সামনে আহুত পথসভার আয়োজন করা হয়।

পৌর বিএনপির সভাপতি মোঃ আকবর আলী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি জিয়াউল ইসলাম সন্টু সরদার, সাধারন সম্পাদক আলাউদ্দিন বিশ্বাস, পৌর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আলমগীর হোসেন আলম, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক এস এম ফজলুর রহমান ও সাংগঠনিক সম্পাদক ইসলাম হোসেন জুয়েল।

পতাকা উত্তোলনের সময় এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আতাউর রহমান পাতা, মোন্তাজুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আজিজুর রহমান শাহিন, আনোয়ার হোসেন জনি, আক্কাস আলী মেম্বর, নুরুল ইসলাম আক্কেল, আব্দুর রাজ্জাক, হাসান আলী, দুলাল মন্ডল, নজরুল ইসলাম, মুক্তার হোসেন, ফেলা মন্ডল, আনোয়ারুল ইসলাম বিশ্বাস, জেলা যুবদলের যুগ্ন সম্পাদক আবু বক্কার সিদ্দিক, পৌর যুবদলের সভাপতি মোস্তফা নূরে আলম শ্যামল, সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন নিফা, সাধারন সম্পাদক জাকির হোসেন জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন হোসেন, শরিফুজ্জামান বাবু, মামুনুর রশিদ নান্টু, পৌর ছাত্রদলের সভাপতি আব্দুল আওয়াল, কিরন, বিকি আগরওয়ালাসহ বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাবকদল, তরুণদল ও ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পতাকা উত্তোলন শেষে পথসভায় বক্তারা বলেন, ১৯৭৮ সালের এই দিনে বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবক্তা স্বাধিনতার ঘোষক শহিদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান নিজ হাতে গড়ে তুলেছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। জিয়াউর রহমান খাল খনন ও শিল্প বিপ্লব ঘটিয়েছিলেন। জিয়াউর রহমান রাজনীতিতে আসার কারণে তৃণমূল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দকে একত্রিত করে ঢেলে সাজিয়েছিলেন। মঈনুদ্দিন-ফখরুদ্দিন সরকারের সাথে আতাঁত করে শেখ হাসিনা নীলনকশা করে ক্ষমতায় এসেছিলেন। স্বৈরাচারী শেখ হাসিনা বর্তমানে পুলিশ দিয়ে বাকশালীয় কায়দায় দেশ পরিচালনা করেছেন। ক্ষমতাশীন দলের ক্যাডার বাহিনীর পাশাপাশি পেটোয়া বাহিনী দিয়ে দলের নেতাকর্মীদের হামলা-মামলা দিয়ে জেল-হাজতে প্রেরন করেছে। নেতাকর্মীদের একত্রিত হয়ে আন্দোলনের মাধ্যমে জালেম সরকারের রোষানল থেকে বেগম খালেদা জিয়াসহ দলের সকল নেতাকর্মীদেরকে মুক্ত করতে হবে।

বক্তারা পুলিশের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা আপনাদের শক্রু নই। আওয়ামীলীগের বিভিন্ন গ্রæপের নেতারা দিনে কয়েকবার মোটর সাইকেল র‌্যালি বের করেন, তখন কোন সমস্যা হয়না। কিন্তু সুশৃঙ্খল ভাবে বিএনপি তাদের দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষির্কীতে র‌্যালি করতে চাইলে বাধা দেয়া হয়। বিএনপির নেতাকর্মীদের স্বতঃস্ফুতা দেখে আওয়ামীলীগ ভয় পেয়ে পুলিশ দিয়ে র‌্যালি করতে দিচ্ছেনা। বিএনপি একটি সুশৃঙ্খল ও বৃহৎ দল। বিএনপি দলের আদর্শ মেনে সকলকে রাজনীতি করতে হবে। আজকের মতো একত্রিত ভাবে বিএনপির চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ডাকে আন্দোলন সংগ্রামে জালেম সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। বিএনপির রাজপথের লড়াকু সৈনিকেরা কখনো পিছু হটেনা, তারা সামনের দিকে এগিয়ে যায়। আন্দোলনের মাধ্যমে ভোট বিহিন সরকারকে গদি থেকে হটিয়ে বিজয় ছিনিয়ে আনবো ইনশাল্লাহ।

প্রিন্স, ঢাকা