দেড় মাসেও কমিটির কোনো সভা হয়নি

নিউজ ডেস্ক: অনেক দিন ধরেই কর্মকর্তাদের জন্য সুপারনিউমারারি (সংখ্যার অতিরিক্ত পদ সৃষ্টি) পদোন্নতি চেয়ে আসছে পুলিশ। পুলিশ সপ্তাহ ছাড়াও নানা ফোরামে এমন দাবি উত্থাপনও করেছে তারা। চলতি বছরের জুলাই মাসে পুলিশের পক্ষ থেকে ৪৯৫ পুলিশ কর্মকর্তাকে সুপারনিউমারারি পদোন্নতি দিতে একটি প্রস্তাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। এর পর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে একজন অতিরিক্ত সচিবকে প্রধান করে সাত সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে একজন ডিআইজিসহ পুলিশের একাধিক প্রতিনিধিও রয়েছেন। তবে কমিটি গঠনের দেড় মাস পার হলেও তাদের একটি বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়নি। এদিকে সরকারের মেয়াদও শেষ হতে চলেছে। এমন বাস্তবতায় সুপারনিউমারারি পদোন্নতির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত বিলম্বিত হওয়ায় পদোন্নতিপ্রত্যাশী অনেকের মধ্যে চাপা অসন্তোষ কাজ করছে। 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে গতকাল শুক্রবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (পুলিশ ও এনটিসিএম) নুরুল ইসলাম সমকালকে বলেন, চলতি সপ্তাহের মাঝামাঝিতে প্রথমবারের মতো বৈঠকে বসবে কমিটি। এর আগে আনুষ্ঠানিক বৈঠকে বসা না হলেও বিষয়টি নিয়ে অনেক ‘ওয়ার্ক’ হয়েছে। কোনো ব্যাপারে বৈঠক হওয়ার আগে সেই বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট কাজ করতে হয়। সেটা করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্যান্য অংশীজনের সঙ্গেও এরই মধ্যে কথা হয়েছে। পুলিশের গ্রেড-২-এর আরও দুটি পদ বাড়ছে বলে জানান তিনি। 
পুলিশের একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, সুপারনিউমারারি পদোন্নতির যৌক্তিকতার বিষয়টি তারা শিগগিরই সরকারের নীতিনির্ধারণ পর্যায়ে তুলে ধরবেন। 

দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, বর্তমানে পুলিশ মহাপরিদর্শকের পদটি সিনিয়র সচিব পদমর্যাদার। এ ছাড়া পুলিশে সচিব পদমর্যাদার গ্রেড-১ পদ রয়েছে ৬টি। এগুলো হলো- অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন), র‌্যাবের ডিজি, ডিএমপি কমিশনার, সিআইডির প্রধান, এসবির প্রধান ও সারদা পুলিশ একাডেমির প্রধানের পদ। এ ছাড়া বর্তমানে অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার গ্রেড-২ পদ রয়েছে ১৩টি। চলতি সপ্তাহে এই পদমর্যাদার আরও দুটি পদ সংযোজন হলে পুলিশে গ্রেড-২ পদ হবে ১৫টি। 

সংশ্নিষ্টরা বলছেন, এর আগে ১২ বছর চাকরির সময়সীমা অতিক্রম করলে অনেকে পুলিশ সুপার (গ্রেড-৫) পদমর্যাদায় উন্নীত হয়েছেন। তবে বর্তমানে ২৫তম বিসিএসে নিয়োগপ্রাপ্ত ১৮৮ জন তাদের চাকরির সময়সীমা ১৩ বছর পার করছেন। এখনও সেই ব্যাচের একজনও পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতি পাননি। পুলিশের নীতিনির্ধারকরা মনে করছেন, ৩১৩ জন কর্মকর্তা এরই মধ্যে প্রত্যাশিত পদের প্রারম্ভিক বেতন স্কেল অতিক্রম করেছেন। তাই তাদের গ্রেড-৫-এ সুপারনিউমারারি পদোন্নতি দেওয়া হলেও সরকারের বাড়তি কোনো অর্থ খরচ হবে না। 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো পুলিশের প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৮৪ ও ৮৫ ব্যাচের ১১ জন কর্মকর্তা এরই মধ্যে ৩০ বছর কর্মকাল অতিক্রান্ত করলেও গ্রেড-১ পদোন্নতি পাচ্ছেন না। একইভাবে ১৯৯১, ১৯৮৯ এবং ১৯৮৫ বিসিএসে যোগদান করা ৪২ জন ডিআইজি ২৭-৩০ বছর চাকরিকাল অতিক্রম করলেও তারা গ্রেড-২ পদোন্নতির অপেক্ষায় রয়েছেন। এ ছাড়া বিভিন্ন ব্যাচে নিয়োগ পাওয়া ৪৬ জন অতিরিক্ত ডিআইজি গ্রেড-৩ পদের প্রত্যাশী। তাদের মধ্যে ১৯৮৫ সালে নিয়োগ পাওয়া তিনজন চাকরির সময়সীমা ৩০ বছর অতিক্রম করেছেন। ১৯৮৯ সালে নিয়োগ পাওয়া ৯ জন চাকরিকাল ২৮ বছর পার করেছেন। ১৯৯১ সালে যোগদান করা ১০ জন ২৭ বছর পার করেছেন। ১৫তম বিসিএসে নিয়োগ পাওয়া ২৪ জন 

চাকরির সময়সীমা ২২ বছর অতিক্রম করেছেন। এ ছাড়া অতিরিক্ত ডিআইজি (গ্রেড-৪) হওয়ার প্রত্যাশা করছেন ৮৩ জন পুলিশ সুপার। তারা এরই মধ্যে ১৯-২৮ বছর পর্যন্ত চাকরির সময়মীমা পার করেছেন। 

প্রশাসন ক্যাডারে সচিব (গ্রেড-১) পদের সংখ্যা মোট ক্যাডারের এক দশমিক ২৭ শতাংশ। তবে পুলিশের গ্রেড-১-এর মঞ্জুরিকৃত পদ দুটি। সম্প্রতি চারটি পদকে সুপার নিউমারারি পদোন্নতিপূর্বক গ্রেড-১ করায় সেই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ছয়টিতে, যা মোট ক্যাডারের মাত্র শূন্য দশমিক শূন্য সাত শতাংশ। সেখানে বলা হয়েছে, প্রশাসন ক্যাডারের সঙ্গে তুলনা করলে পুলিশে গ্রেড-১ পদ থাকার কথা ৩৮টি।

একইভাবে প্রশাসন ক্যাডারে গ্রেড-২ (অতিরিক্ত সচিব) পদে সুপার নিউমারারিসহ কর্মরত আছেন ৩৭৪ জন। পুলিশে গ্রেড-২ পদ ১৩টি। প্রশাসন ক্যাডারের সঙ্গে তুলনা করলে পুলিশে গ্রেড-২ পদ থাকার কথা ২২৭টি। পুলিশে গ্রেড-৩ (যুগ্ম সচিব) পদ রয়েছে ৬২টি। প্রশাসন ক্যাডারের সঙ্গে তুলনা করলে গ্রেড-৩ পদ থাকার কথা ৩৬৫টি। গ্রেড-৫-এ পুলিশের জনবল রয়েছে ৩৬২ জন। প্রশাসন ক্যাডারের সঙ্গে তুলনা করলে গ্রেড-৫-এ পুলিশের পদ থাকার কথা ৮০৪টি। পুলিশ সুপার পদে নিউমারারি পদোন্নতি চান ৬৫৩ জন। সুপার নিউমারারি পদোন্নতি নিয়ে চলতি বছরের মার্চে পুলিশ সদর দপ্তরে পুলিশের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম পলিসি গ্রুপের বৈঠকে বলা হয়, যোগ্য ও জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের উচ্চতর পদে পদোন্নতি দেওয়া প্রয়োজন। তাই সুপার নিউমারারি পদোন্নতি অত্যন্ত জরুরি বলে সেখানে মতামত ব্যক্ত করা হয়। 

সূত্র: সমকাল