আবারও বন্ধ হলো নোলক ছবির শুটিং

নিউজ ডেস্কঃ  শাকিব খান ও ববি অভিনীত ছবি ‘নোলক’ এর পরিচালক নিয়ে জল কম ঘোলা হয়নি। ঈদুল আজহায় ছবিটির মুক্তির কথা থাকলেও পরিচালক-প্রযোজকের দ্বন্দ্বের কারণে আটকে যায় ছবির শুটিং। ফলে শুটিং শেষ না হওয়ায় ঈদে মুক্তি সম্ভব হয়নি নোলকের।

অবশেষে পরিচালক প্রযোজক-দ্বন্দ্ব মাথায় নিয়েই নায়ক শাকিব খান ‘নোলক’এর শুটিংয়ে হাজির হন। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর কোক স্টুডিওতে শুটিংয়ে অংশ নেন এ নায়ক। দিনভর শুটিং করলেও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির হস্তক্ষেপে সন্ধ্যায় শুটিং বন্ধ হয় নোলকের।

কারণ, নোলকের পরিচালক রাশেদ রাহা ও প্রযোজক সনেটের মধ্যকার দ্বন্দ্বের বিষয়টি এখনও অমিমাংশিত রয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির টেবিলে। এমতাবস্থায় রাশেদ রাহাকে না জানিয়েই শুরু হয় শুটিং। বিষয়টি তিনি জানার পরই পরিচালক সমিতিকে বিষয়টি অবহিত করেন রাশেদ রাহা। যার প্রেক্ষিতে পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার শাকিব খানকে ফোন করে জানালে, শাকিব খান শুটিং বন্ধ রাখেন।

এ প্রসঙ্গে শাকিব খান জানান, আমি তো শিডিউল মোতাবেক শুটিংয়ের অংশ নিয়েছি। আমাকে বলা হয়েছে পরিচালক-প্রযোজক দ্বন্দ্ব মিটে গেছে। পরে পরিচালক সমিতির পক্ষ থেকে জানানো হয় বিষয়টি এখনও অমিমাংশিত। তাই শুটিং করছিনা।

এদিকে বিষয়টি সুরাহার জন্য ১ মে পরিচালক সমিতিতে বৈঠক ঢাকা হয়েছে। এ বিষয়ে পরিচালক রাশেদ রাহা ও প্রযোজক শাকিব সনেটকে চিঠি ইস্যু করা হয়েছে বলে জানিয়ছেন সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন।

তিনি বলেন, ‘নোলক নিয়ে ঝামেলা এখনও অমিমাংসিত। এ অবস্থাতেই শুনলাম গতকাল থেকে ছবিটির শুটিং হচ্ছে। আমরা প্রযোজক সাকিব সনেটকে ফোনে দিয়েছি। এছাড়াও দুইজনের নামেই চিঠি ইস্যু করেছে সমিতি। আগামী ১ সেপ্টেম্বর তারা যদি উভয় উপস্থিত হন তাহলে আশা করি একটা সমাধানে পৌছাবে’

ছবিটির প্রায় ৮০ ভাগ শুটিং শেষ হয়েছে। বাকী রয়েছে কেবল তিনটি গান ও ছয়টি সিক্যুয়েন্স। ৮০ ভাগ কাজ শেষ করেছেন পরিচালক রাশেদ রাহা।

ছবিটির ফের শুটিং শুরু প্রসঙ্গে ছবিটির পরিচালক রাশেদ রাহা জানেন না কিছুই। আক্ষেপ প্রকাশ করে এ পরিচালক সমকাল অনলাইনকে বলেন, ‘ছবিটির শেষ পর্যায়ে এসে বলা হচ্ছে আমি আর নোলকের নির্মাতা থাকবো না। বিষয়টি আমি আমাদের চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিকে জানিয়েছি। তারা মিমাংসার জন্য আমাকে চিঠি ইস্যু করেছে। এর মধ্যেই ছবিটির শুটিং শুরু করেছেন প্রযোজক। এ বিষয়ে আর কী করার আছে? আমি তো একজন পরিচালক হিসেবে যা যা করার দরকার তার সবটাই করছি। এখন দেখা যাক কী হয়।’

‘নোলক’ ছবিটির আশি ভাগ কাজ শেষ করেছেন রাশেদ রাহা। এখন প্রযোজক চাইছেন না ছবিটির পরিচালক হিসেবে রাশেদ রাহা থাকুক। তার দাবী, রাশেদ রাহা পরিচালক হিসেবে ‘আনাড়ি’। শোনা যাচ্ছে, ছবিটির পরবর্তী পরিচালক ইফতেখার চৌধুরীকে চূড়ান্ত করতে চাইছেন তিনি।