নতুনদের পাশে দাঁড়ালে তারা আরও ভালো করবেঃ আইয়ুব বাচ্চু

নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশের ব্যান্ড সঙ্গীতের এক বিস্ময় জাগানো গায়কের নাম আইয়ুব বাচ্চু। যার কণ্ঠের জাদু আর গিটারের মুর্ছনায় উন্মাদ হন শ্রোতারা। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত শ্রোতাদের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন সবসময়। বাংলা ব্যান্ড সঙ্গীতকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন তিনি। আজ এ সঙ্গীত তারকার জন্মদিন। বিশেষ দিনটি কীভাবে পালন করছেন এ তারকা? পাশাপাশি ক্যারিয়ারের প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি ও নানা প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেন তিনি।

বিশেষ দিনটি কীভাবে পালন করছেন?

বিশেষ দিনটি বিশেষ কোন আয়োজনের মাধ্যমে পালন করা হয়না। জন্মদিনটি যে যার মতো করে উদযাপন করছে। নরসিংদিতে আমার একটা ফ্যান ক্লাব আছে। তারা সেখানে তাদের মতো করে জন্মদিনটি উদযাপন করছে। কুমিল্লায় যারা আছে তারা করছে, চিটাগাংয়ে করছে, ঢাকায় মিরপুরে করছে। বিশাল কেক কেটে ওরা ওদের মতো করে দিনটি উদযাপন করছে। আর শ্রোতাদের ভালোবাসা তো সেই শুরু থেকেই পেয়ে আসছি। এখনও পাচ্ছি। তাদের ভালোবাসায় আমি মুগ্ধ। আজ বিকেলে আমার ফ্যানদের একটি গ্রুপ দেখা করতে আসবে। তাদের সঙ্গে সময় কাটাবো। এছাড়াও সকালে একটি চ্যানেলের তারকা কথনে অংশ নিয়েছি।

এখন ব্যস্ততা কী নিয়ে?

এলআরবি নিয়েই তো আমার সব ব্যস্ততা। সকালে ঘুম থেকে উঠার পরই তো কাজের ব্যস্ততা শুরু হয়। শুধু শুক্রবার কোন কাজ রাখি না। বাকী ছয়দিন গান নিয়েই কাজ করি। প্রতিনিয়ত নিজেকে তৈরি করি। নতুন নতুন গান সৃষ্টির কাজ, প্র্যাকটিস, লাইভ শো এসব নিয়েই তো ব্যস্ততা যাচ্ছে।

এলআরবি ব্যান্ড দল
এ প্রজন্মের অনেক গায়কই এবং যারা গান গাইতে আসছেন তারা আইডল হিসেবে আপনাকে অনুসরণ করেন। বিষয়টি কীভাবে দেখছেন আপনি?

আমি আইয়ুব বাচ্চু এখনও অনুসরণ করার মতো কিছু হতে পারিনি। তবে কেউ যখন আমাকে অনুকরণ করে তখন বিষয়টি ভালোই লাগে।অনুসরণ করে তারাও ভালো গায়। নিজেদের গানে ভিন্নতা আনার চেষ্টা করেন। তাদের প্রতি আমার ভালোবাসা ও আর্শিবাদ।

গান করার ক্ষেত্রে আপনি কাকে অনুসরণ করেছেন?

আসলে অনুসরণ না আমি অনেকের কাছ থেকেই অনুপ্রেরণা নিয়েছি এবং এখনও নিচ্ছি। তারা হলেন রিচি ব্ল্যাক মোর, জিম মরিসন, জেফ লুমি। এছাড়াও বিশেষভাবে বলতে হয় প্রয়াত পপগুরু আজম খানের কথা। তাদের জন্যই আজকের আইয়ুব বাচ্চু।

এখন তো আর আগের মতো ব্যান্ডদলগুলোর সুবর্ণ সময় নেই। আগের মতো গানও দিতে পারছে না। এমনটি কেন হচ্ছে?

শুধু ব্যান্ডের কথা বলাটা ঠিক হবে না। এখন তো গানের পুরো ইন্ডাস্ট্রিই খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। গানে পাইরেসির মতো বিষাক্ত বিষয়টি ঢুকিয়ে দেয়ার কারণে নতুন কিছু সৃষ্টি কমে গেছে। সিডিতে গান শোনার আনন্দ আগের মতো নেই। তবে অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে। আশা করি, গান প্রকাশের সুন্দর একটি পরিস্থিতি আসন্ন।

গিটার আর কণ্ঠে মুগ্ধতা ছড়ানো গায়ক আইয়ুব বাচ্চু
নতুন কোন ব্যান্ডদলও তো আসছে না…

এ কথার সঙ্গে আমি একমত নই। আমি সর্বদা তরুণদের সঙ্গে থাকি। দেশে অনেক ভালো ভালো তরুণ প্রজন্মের পক্ষে থাকি সবসময়। আমাদের দেশে অনেক ভালো ভালো ব্যান্ডদল তৈরি হচ্ছে। এটা অনেকেই দেখেও না দেখার ভান করছেন। চুপ করে আছি। ফলে তারা সামনে আসতে পারছে না। এ ব্যর্থতা আমাদের। আমরা তাদের পাশে দাঁড়ালে তারা আরও ভালো করবে।

আপনার পক্ষ থেকে সেই ব্যান্ডগুলোর জন্য কতটা করা হচ্ছে?

ওই বললাম আমি সর্বদা তরুণদের সঙ্গে আছি। বিভিন্ন সময় তাদের নিয়ে কাজ করছি আমি। টিভিতেও তাদের নিয়ে অনুষ্ঠান করছি। যারা আমার সম্পর্ক খোঁজ রাখেন তারা বিষয়টি জানবেন।

এলআরবি থেকে কোন অ্যালবাম আসছে না কেন?

গানের বাজার এখন অস্থিতিশীল তাই নতুন গান প্রকাশ করছে না এলআরবি। এখন তো আর ফিজিক্যাল অ্যালবাম করার চল নেই। তাই নতুনভাবে ভাবছে এলআরবি। অ্যালবাম হয়তো আর আসবে না।তবে সিঙ্গেল সিঙ্গেল করে গান প্রকাশ করা হবে।

নিজেকে শিল্পী না গিটারিস্ট কোন পরিচয় দিতে ভালো লাগে?

রকস্টার, শিল্পী, গিটারিস্ট এসব হচ্ছে বাহ্যিক বিষয়। একটা কথা আছে, মানুষ হয়েও মানুষ হওয়ার প্রবল ইচ্ছে মানুষের পিছু ছাড়ে না। আমার ক্ষেত্রেও তাই। ভালো মানুষ হতে চাই। সবসময় ভালো মানুষের জায়গায় নিজেকে ভাবতে ভালো লাগে।