চট্রগ্রাম দক্ষিণ পূর্ব রিজিয়ন কাবাডি ফাইনাল খেলা অনুষ্টিত

জসিম উদ্দিন জয়নাল,খাগড়াছড়ি: বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন-বিজিবি‘র মাটিরাঙ্গায় বিজিবি চট্রগ্রাম দক্ষিণ পূর্ব রিজিয়নের সম্পন্ন হয়েছে আন্ত: ব্যাটালিয়ন কাবাডি প্রতিযোগিতা। বুধবার ৮আগষ্ট সকাল সাড়ে ১০টার দিকে যামিনীপাড়া জোন সদরে অনুষ্ঠিত ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণ করেন বিজিবি‘র গুইমারা সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মো: আব্দুল হাই পিএসসি, জি-গুইমারা সেক্টরের তত্বাবধানে এবং ২৩বিজিবি যামিনিপাড়া জোনের ব্যবস্হাপনায় বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন-বিজিবি‘র দক্ষিণ-পূর্ব রিজিয়নের ১৩ টি ব্যাটালিয়নএ প্রতিয়োগিতায় অংশ গ্রহণ করেছে। ৫ আগষ্ট এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়।

২৩ বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল মো: মাহমুদুল হক, বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন-বিজিবি‘র দক্ষিণ-পূর্ব রিজিয়নের পরিচালক (অপারেশন) লে. কর্নেল মো: রাহাত নেওয়াজ পিএসসি, বিজিবি’র গুইমারা সেক্টরের অতিরিক্ত পরিচালক (অপারেশন) মেজর মো: হামিদ উর রহমান টিই, ২৩ বিজিবি’র উপ-অধিনায়ক মেজর মো: রফিকুল ইসলাম, মেজর সৈয়দ আনসার মোহাম্মদ কাউসার পিএসসি, সিগন্যাল সহ ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

কাবাডি খেলাটি পরিচালনা করেন বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সদস্য আন্তর্জাতিক কাবাডি রেফারী এসএম এ মান্নান। খেলায় ২৮-১৭ পয়েন্টে চট্টগ্রামের ৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নকে হারিয়ে শিরোপা লাভ করে ২৩ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন। খেলায় শ্রেষ্ঠ প্রবীন খেলোয়াড় নির্বাচিত হয় বিজয়ী দলের নায়েব সুবেদার মো: তরিকুল ইসলাম এবং শ্রেষ্ঠ নবীন খেলোয়াড় নির্বাচিত হন ৪১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের খেলোয়াড় মো: আল-আমিন।

প্রধান অতিথি বিজিবি গুইমারা সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল আব্দুল হাই,পিএসসি জি যামিনীপাড়া ২৩ বিজিবি মাঠে অনুষ্টিত কাবাডি ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরন শেষে খেলোয়াড়দের উদ্দেশে বলেন,
১৩টি দল ভাল খেলেছে,সামনে রিজিয়নের খেলার জন্য সকলকে ভালভাবে প্রস্তুতি নেওয়ার পরার্মশ দেন।তিনি আরো বলেন,সুস্থ দেহ, সুস্থ মনের জন্য কাবাডিচর্চার বিকল্প নেই। অন্যভাবে বলা যায়, ‘দম নেওয়া’ বা
‘ফুসফুসের শক্তি বৃদ্ধি করা’, ক্ষিপ্রতা, সহনশীলতা, দ্রুত চিন্তা ও সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা, প্রতিপক্ষের কৌশল ও মনোভাব অনুধাবন করার ক্ষমতা প্রভৃতি কাবাডি খেলায় যেভাবে চর্চা করা হয়, অন্যটিতে তা হয় না।