গোলাম সারওয়ার সিঙ্গাপুরে চিকিৎসারত

নিউজ ডেস্ক: সিঙ্গাপুরে সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ারের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। শনিবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ২১ মিনিটে তাকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির পরপরই সেখানে তার চিকিৎসা শুরু হয়।

এর আগে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত শুক্রবার মধ্যরাতে গোলাম সারওয়ারকে নিয়ে একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। শনিবার সকালে সেটি সিঙ্গাপুরে পৌঁছায়। গোলাম সারওয়ার হৃদরোগের পাশাপাশি নিউমোনিয়া ও ফুসফুসের জটিলতায় ভুগছেন। সিঙ্গাপুরে গোলাম সারওয়ারের সঙ্গে আছেন তার স্ত্রী সালেহা সারওয়ার, দুই ছেলে গোলাম শাহরিয়ার রঞ্জন ও গোলাম সাব্বির অঞ্জন, জামাতা মিয়া নাঈম হাবিব এবং সমকালের বিশেষ প্রতিনিধি শরিফুল ইসলাম।

গোলাম সারওয়ারের চিকিৎসার বিষয়টি সরাসরি তত্ত্বাবধান করছেন সমকালের প্রকাশক এ. কে. আজাদ। পরিবার এবং সমকালের পক্ষ থেকে শুভানুধ্যায়ী ও দেশবাসীর কাছে সম্পাদকের আশু রোগমুক্তির জন্য দোয়া চাওয়া হয়েছে।

শুক্রবার রাতে সিঙ্গাপুর রওনা দেওয়ার সময় সহকর্মীরা ল্যাবএইড হাসপাতালে ভিড় জমান, প্রিয় সম্পাদককে সাহস জোগান। এ সময় সমকালের নির্বাহী পরিচালক মেজর জেনারেল (অব.) এস এম শাহাব উদ্দিন, নির্বাহী সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি, উপ-সম্পাদক আবু সাঈদ খান, সহযোগী সম্পাদক সবুজ ইউনুস, বার্তা সম্পাদক মশিউর রহমান টিপু, সম্পাদক শাহেদ চৌধুরী, চিফ রিপোর্টার লোটন একরামসহ সমকালের সাংবাদিক-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

গত রবিবার মধ্যরাতে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন দেশবরেণ্য সাংবাদিক, সম্পাদক পরিষদের সভাপতি গোলাম সারওয়ার। তার চিকিৎসায় ল্যাবএইড কর্তৃপক্ষ সোমবার হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. সোহরাবুজ্জামানের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর সেখানকার মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা জানান, গোলাম সারওয়ার হার্ট অ্যাটাক নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তার ফুসফুসে পানি জমেছে এবং নিউমোনিয়া সংক্রমণ আছে।

হার্টের পাশাপাশি তিনি কিডনি, ফুসফুসসহ নানা শারীরিক সমস্যায় আক্রান্ত। এ কারণে দ্রুত নিউমোনিয়া সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগ করা যাচ্ছে না। একই কারণে তার ফুসফুসে জমে থাকা পানি অপসারণ সম্ভব হচ্ছে না। এ অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়।