নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাজপথে শিক্ষার্থীরা

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি: নিরাপদ সড়ক চাই’চাইনা অনিশ্চিত যাত্রা’‘পারদর্শী চালক চাই’চাই জীবনের নিরাপত্তা”“এমন অনেক শ্লোগান নিয়ে ৯দফা দাবী আদায়ের লক্ষে এবার রাজপথে নেমেছে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা।

গতকাল শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এমন বেশকিছু শ্লোগান নিয়ে সিলেট-জকিগঞ্জ সড়ক দখল করে রাখেন শিক্ষার্থীরা। গোলাপগঞ্জ এমসি একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ছিল লক্ষনীয়। এসময় তারা মহাসড়ক দখলের পাশাপাশি গণপরিবহন আটকিয়ে ড্রাইভিং লাসেন্স,কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে। দুপুর সাড়ে ১২টায় পুলিশ, উপজেলা প্রশাসন ও উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুরোধে আন্দোলন সমাপ্তি করা হয়।

অপরদিকে গোলাপগঞ্জ উপজেলা নিরাপদ সড়ক চাই’নিসচার সংগঠন এমসির শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে গোলাপগঞ্জ এমসি একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজের সামনে কর্মসূচী পালন করে। নিরাপদক সড়ক নিসচার কর্মসূচী সকাল ১১টায় গোলাপগঞ্জ পৌর চৌমুহনীতে হওয়ার কথা থাকলেও তাদের সংগঠনের লোকদের একত্রিত করতে না পারায় শিক্ষার্থীদের কর্মসূচী সমাপ্তি হওয়ার পর সংগঠনের ৭/৮জন লোক এমসির শিক্ষার্থীদের নিয়ে কর্মসূচী পালন করে। এদিকে কেন্দ্রের অংশ হিসেবে উপজেলা শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা পৌরসভার সানরাইজ কমিউনিটি সেন্টারের সামনে গাছ ফেলে সড়ক-মহাসক দখলে রাখে। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন চরম ভোগান্তিতে পড়েন।

তবে গণ-পরিবহনের চালকরা অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে যাত্রীদের যাতায়াত করছে। বহিরাগত গণপরিবহনের চালকদের দীর্ঘক্ষণ আটকিয়ে রাখে উপজেলা শাখার শ্রমিক নেতারা। উপজেলার গাড়ীগুলো আটকের মুখ দেখে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তাছাড়া উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে পুলিশ চেকপোষ্ট বসিয়ে গাড়ীর কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে।

দুপুরে এমসি স্কুল এন্ড কলেজ এলাকায় শসাঙ্কা চন্দ্র পাউল নামে উপজেলার এক সরকারী কর্মচারীর সিলেট-ল ১২-০৭৩৯ নাম্বারের একটি মোটরসাইকেল আটক করে কাগজপত্র যাচাই বাছাই করতে দেখায় যায়। এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি একেএম ফজলুল হক শিবলীর সাথে আলাপ করা হলে তিনি বলেন শিক্ষার্থী ও স্কুল কালেজের প্রধান শিক্ষদের অনেক অনুরোধের পর শিক্ষার্থীরা তাদের কর্মসূচী প্রত্যাহার করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়গুলোতে পুলিশের উপস্থিতি ছিল।

প্রিন্স, ঢাকা