শোকাবহ আগস্টের প্রথম দিন

নিউজ ডেস্ক: বছর ঘুরে আবার এসেছে বাঙালি জাতির ইতিহাসের শোকাবহ ক্ষণ। আজ বুধবার আগস্টের প্রথম দিন। বাংলাদেশের শোকের মাস শুরু।

এ মাস নতুন করে ভাবতে শেখায়। শোকের মাসে প্রত্যয় ও শপথে শোককে শক্তিতে পরিণত করার অভয়মন্ত্রে আবার উদ্দীপিত হবে বাঙালি জাতি।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নৃশংসভাবে পরিবারের সদস্য ও নিকটাত্মীয়সহ হত্যা করা হয়েছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। শুধু বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা বিদেশে থাকায় বেঁচে যান।

১৫ আগস্ট কালোরাতে বঙ্গবন্ধুর সাথে হত্যা করা হয় বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল, শিশুপুত্র শেখ রাসেলসহ পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামালকে। জঘন্যতম এই হত্যাকাণ্ডে নিহত হন বঙ্গবন্ধুর ভাই শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, ভাগ্নে যুবনেতা ও সাংবাদিক শেখ ফজলুল হক মণি, কর্নেল জামিলসহ ১৬ জন সদস্য ও আত্মীয়স্বজন।

সেই হত্যাকাণ্ডের বিয়োগান্ত অধ্যায় সূত্রে জাতি আগস্ট মাস জুড়ে গভীর শোক ও শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগস্টের শহীদদের।

পুরো আগস্ট মাস জুড়ে গভীর শোক ও শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হবে এই মহানায়ককে। শোকাবহ পরিবেশে মাসব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে আওয়ামী লীগসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সব সংগঠন।

বুধবার রাতের প্রথম প্রহরে ১২টা ১ মিনিটে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, আলোক শিখা প্রজ্বলন, মিছিল ও শপথ গ্রহণের মাধ্যমে শোকের মাস আগস্টের মাসব্যাপী কর্মসূচি শুরু হয়।

আগস্ট মাস বঙ্গবন্ধুর দল আওয়ামী লীগসহ পুরো জাতি পালন করে শোকের মাস হিসেবে। ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন উপলক্ষে প্রতিবারের মতো এবারও কেন্দ্রীয়ভাবে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

আগস্টের প্রথম দিনের কর্মসূচি : আজ বুধবার বিকাল ৩টায় কৃষক লীগের আয়োজনে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি রযেছে। ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হবে।

বিকাল সাড়ে ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু সমাজ কল্যাণ পরিষদ আলোচনা সভা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

এদিকে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকী ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মাসব্যাপী ‘বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ বইমেলা’র আয়োজন করা হয়েছে। আজ আগস্টের প্রথম দিন এ মেলা শুরু হবে। শেষ হবে ৩১ আগস্ট। এ আয়োজনের উদ্যোক্তা শ্রাবণ প্রকাশনী ও বই নিউজ।

‘বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ বইমেলা’র পিকআপ ভ্যানটি ১ আগস্ট থেকে পর্যায়ক্রমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশপাশের জেলার স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে পর্যায়ক্রমে অবস্থান করবে।

মেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর লেখা ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও ‘কারাগারের রোজনামচা’সহ বঙ্গবন্ধুর ওপর খ্যাতিমান লেখকদের ১০০টি সেরা বই প্রদর্শিত এবং বিক্রি করা হবে। বঙ্গবন্ধুর ওপর শ্রাবণ প্রকাশনীর বই এতে থাকবে।

মেলায় ক্রেতারা ২৫ শতাংশ কমিশনে বই কিনতে পারবেন। মেলার পিকআপ ভ্যান ঢাকা শহর ছাড়াও নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, গাজীপুর ও মানিকগঞ্জের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান করবে।