সুন্দর পরিচ্ছন্ন ময়মনসিংহ শহর গড়তে সহযোগিতা চাই : মাহমুদ হাসান

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ : রাজধানীর সবচেয়ে নিকটতম ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন জেলা ও বিভাগীয় শহর ময়মনসিংহ। বিশে^র উন্নত শহরগুলোর আদলে ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরকে গড়ে তোলার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নানা সহযোগিতা হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর অভিপ্রায় অনুসারে আমরাও এই শহরটিকে আধুনিক সুন্দর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন শহর হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

শুধু মেয়র নয় কাউন্সিলরসহ সকল নাগরিককে পরিচ্ছন্ন শহরে রূপান্তরে আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করতে হবে। শহরের ২১টি ওয়ার্ডের মাঝে যে ওয়ার্ড বেশী পরিষ্কার ও পরিচ্ছন্ন করা হবে একমাস পর সেই ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে পুরষ্কৃত করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ময়মনসিংহের দ্বিতীয় বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসান। বিভাগীয় কমিশনার আরো বলেন এই শহরে আমাদের চারপাশের আঙ্গিনা নিজ দায়িত্বে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে নোংরা রাখা যাবে না। রাস্তাসহ যেখানে সেখানে আবর্জনা না ফেলে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

সোমবার ৩০জুলাই সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ পৌরসভার উন্নয়ন বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় পৌরসভার শহীদ সাহাব উদ্দিন মিলনায়তনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসান এসব কথা বলেন।

ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামূল হক টিটুর সভাপতিত্বে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোজাম্মেল হকের সঞ্চালনায় বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদুল হাসান আরো বলেন, উন্নত বিশে^র আদলে আমাদের স্বপ্নের এই শহরটিকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কর্মকান্ডের মাধ্যমে উন্নয়ন করতে চাই। শহরের গরুর অবাদ বিচরণ বন্ধ করা হবে। তিনি গরুর মালিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আগামী এক মাস পর শহরের রাস্তায় কোনো গরু পাওয়া গেলে গরু আটকসহ মালিককে জরিমানা করা হবে।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ রফিকুল ইসলাম মিঞা, ক্লিনিক ডায়াগনোষ্টিক মালিক সমিতির সভাপতি ডাঃ হরিশংকর দাস, বিএমএ সাধারন সম্পাদক ডাঃ তারা গোলন্দাজ, চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক শংকর সাহা, পৌর সচিব মোঃ আব্দুল হালিম, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম প্রমূখ। এছাড়াও সাংবাদিক, শিক্ষক, ব্যবসায়ী বিভিন্ন পেশাজীবী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক চিত্র তুলে ধরে উপস্থাপন করে পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মিঞা।