ময়মনসিংহে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে ও গলাকেটে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ

ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আজাদ শেখকে (৩৫) গুলি করে ও গলাকেটে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ।

৩১ জুলাই মঙ্গলবার বিকেল আনমানিক পৌনে ৩ টার দিকে শহরতলীর আকুয়া মোড়লপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল ইসলাম জানান, সকাল থেকে আকুয়া মোড়লপাড়া এলাকায় আজাদ শেখ ও ফরিদ শেখের মধ্যে গুলিবিনিময় চলছিল। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের লোকজন আজাদকে শেখকে তুলে নিয়ে যায়।

বিকেলে আজাদকে গুলি ও গলাকাটা অবস্থায় স্থানীয় নাজির বাড়ি এলাকা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।পরবর্তীতে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয় এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, মহানগর যুবলীগের সদস্য আজাদ শেখ এক সময় মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তর অনুসারী ছিলেন।

নিজ গ্রুপে নিজেকে তুলে ধরতে না পারায় আজাদ শেখ গ্রুপ বদল করে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল ও ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামুল হক টিটুর গ্রুপে যোগ দেন।

অপরদিকে ফরিদ শেখ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শান্তর অনুসারী। মূলত আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত দেড় মাস ধরে আকুয়া মোড়লপাড়ায় এই দুই পক্ষের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এরই জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।