জাতীয় মৎস্য পুরস্কার-২০১৮ পেলেন ১৭ জন ও প্রতিষ্ঠান

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ এর সমাপনী দিনে আজ মৎস্যখাতে উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য দেশের ১৭টি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে জাতীয় মৎস্য পুরস্কার-২০১৮ প্রদান করা হয়েছে। ১২ ক্যাটাগরিতে ১৭টি পুরস্কারের মধ্যে পাঁচপ্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে স্বর্ণপদক ও নগদ ৫০ হাজার টাকা এবং ১২ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে রৌপ্যপদক ও ৩০ হাজার করে টাকা প্রদান করা হয়।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ আজ জাতীয় জাদুঘরে অনুষ্ঠিত পুরষ্কারবিতরণীতে নির্বাচিতদের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে এ পুরস্কার ও সনদ তুলে দেন।

মৎস্যচাষ, উৎপাদন, রপ্তানিসহ মৎস্যখাতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখায় বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে প্রতিবছর জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের সমাপনী দিবসে এই পুরষ্কার প্রদান করা হয়ে থাকে। পুরষ্কার প্রদানের জন্য ১২টি ক্যাটাগরি হচ্ছে- (১) মাছ উৎপাদন (২) গুণগতমানের মাছের রেনু উৎপাদন (৩) গুণগতমানের মাছের পোনা উৎপাদন (৪) বাগদাচিংড়ির গুণগতমানের পোস্ট লার্ভা বা পিএল উৎপাদন (৫) গলদাচিংড়ির গুণগতমানের পোস্ট লার্ভা বা পিএল উৎপাদন (৬) বাগদাচিংড়ি উৎপাদন (৭) গলদাচিংড়ির উৎপাদন (৮) মৎস্য ও মৎস্যজাত পণ্য রপ্তানিকরণ (৯) মৎস্যসম্পদ উন্নয়নে সমাজভিত্তিক সংগঠনের অবদান (১০) মৎস্যসম্পদ উন্নয়নে ব্যক্তির অবদান (১১) গুণগতমানের মৎস্যখাদ্য উৎপাদন (১২) প্রক্রিয়াজাতকরণ ও বাজারজাতকরণ।

স্বর্ণপদক ও ৫০ হাজার টাকা পুরস্কারপ্রাপ্ত পাঁচটি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি হচ্ছে (১) গুণগতমানের মাছের রেনু উৎপাদনে “অনুদান মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র, ময়মনসিংহ। (২) গুণগতমানের মাছের পোনা উৎপাদনে (২) আফিল একুয়া ফিস লিমিটেড যশোর (৩) মাছ ঊৎপাদনে মোঃ শাহাদাত হোসেন, রাজশাহী। (৪) বাগদাচিংড়ির গুণগতমানের পিএল উৎপাদনে গোল্ডেন একুয়া শ্রিম্প হ্যাচারী লিঃ, চট্টগ্রাম এবং (৫) মৎস্যসম্পদ উন্নয়নে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড বাহিনী, ঢাকা।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে মৎস অধিদপ্তরের ডিজি গুলজার হোসেনের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন সংসদ সদস্য আফিল উদ্দিন চৌধুরী, কোস্টগার্ডের ডিজি আওরঙ্গজেব চৌধুরী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব অরুন কুমার মালাকার এবং মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান দিলদার আহমেদ।

প্রিন্স, ঢাকা নিউজ২৪