টেলিফোনে কথা বললে সমস্যা কোথায়ঃ ওবায়দুল কাদের

নিউজ ডেস্কঃ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচন নিয়ে বিএনপির সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সংলাপের প্রয়োজন নেই। তবে পারস্পরিক দূরত্ব কমাতে দলটির নেতাদের সঙ্গে আলাপে বাধা নেই। সমঝোতার (ওয়ার্কিং আন্ডারস্ট্যান্ডডিং) জন্য বিএনপির নেতাদের সঙ্গে ফোনে কথা হতে পারে।

শুক্রবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে গিয়ে এসব কথা বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

গত বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেছিলেন, নির্বাচনে অংশ নিলে যে কোনো দলের সঙ্গে আলোচনা হতে পারে। তবে আগের দিনের বক্তব্য থেকে সরে এসে তিনি দাবি করেন, বিএনপির সঙ্গে আলোচনার কথা বলেননি। সংলাপের কথা বলেননি। বলেছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তাকে কখনো টেলিফোন করেন না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সমঝোতার (ওয়ার্কিং আন্ডারস্ট্যান্ডডিং) জন্য বিএনপির নেতাদের সঙ্গে ফোনে কথা হতে পারে। এর বেশি নয়। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার বাকি আর মাত্র পৌনে তিন মাস। এ সময়ের মধ্যে আনুষ্ঠানিক সংলাপের প্রয়োজন নেই।

অনাননুষ্ঠানিক আলোচনার আভাস দিয়ে তিনি বলেন, ‘সবকিছুই কী আনুষ্ঠানিক হতে হবে! চোখে দেখাদেখি না হোক, টেলিফোনে অনানুষ্ঠানিক কথাবার্তা হতে পারে। এতে করে নিজেদের দূরত্ব কমে যায়।’ তিনি বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘টেলিফোনে কথা বললে সমস্যা কোথায়।’ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের এ বক্তব্যের পর বিএনপির মহাসচিব নয়াপল্টনে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ওবায়দুল কাদেরের কল পেলে তিনিও ফিরতি কল করবেন।

ওবায়দুল কাদের জানান, অনেক দল আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দিতে চাইছে। ১৪ দল সম্প্রসারণের বিষয়ে তিনি বলেন, নির্বাচন এলে মেরুকরণ হয়। অনেকে জোটে আসতে চাইছে। অনেকে আবার আলাদা জোট করছে। শেষ পর্যন্ত এ প্রক্রিয়া কোথায় দাঁড়াবে তা দেখতে অপেক্ষা করতে হবে।

ওবায়দুল কাদের জানান, চলতি মাসের ২৫ তারিখ পর্যন্ত মেট্রোরেলের ১৬ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। যে গতিতে কাজ চলছে তাতে আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও অংশের কাজ শেষ হবে। ২০২০ সালের মধ্যে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রো রেলপথের নির্মাণ কাজ শেষ হবে।

প্রকল্প পরিকল্পনা অনুযায়ী, ২০২০ সালের মধ্যে আগারগাঁও পর্যন্ত এবং ২০২৪ সালের মধ্যে মতিঝিল অংশের কাজ শেষ হবে। তবে আগেভাগেই কাজ শেষ করার চেষ্টা করছে সরকার। মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজের কারণে মিরপুরের পথে দুর্ভোগ হচ্ছে। দুর্ভোগ সহনীয় পর্যায়ে রাখতে রাস্তা ঠিক রাখার নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের। এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেট্রোরেল কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম,এ,এন, ছিদ্দিক, মেট্রোরেল প্রকল্পের পরিচালক আফতাব উদ্দিন তালুকদার প্রমুখ।