সাকির অপহরণকারীদের বিচার দাবীতে অনশন

তাইজুল ইসলাম সবুজ: মুক্তিযুদ্ধ স্বাধীনতা সংগ্রামের স্বপক্ষের সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্বারাষ্ট্র মন্ত্রীর মাদক, সন্ত্রাস, অপহরণের বিরোদ্ধে চলমান অভিযানের মাঝেও থেমে নেই অপহরণকারীরা 

১৬ জুলাই ২০১৮ সোমবার, বাংলাদেশ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নারায়নগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধ সংসদের সাবেক জেলা কমাণ্ডার বীর  মুক্তিযোদ্ধা যুদ্ধকালীর কমাণ্ডার মরহুম মহিউদ্দিন আহাম্মেদ দুলালের নাতি নারায়নগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি সৈয়দ ওমর খালেদ এপনের দেড় বছরের শিশু সৈয়দ সাদমান সাকির অপহরণকারীদের আইনের আওতায় এনে বিচার দাবী ও সাকিকে মা-বাবার বুকে ফিরিয়ে দেওয়ার “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী” বরাবর আকুল আবেদন জানিয়ে অনশন ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়

উল্লেখ্য গত ১লা ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং দুপুর ০১.৩০ মিনিটে সাকি নিজ বাড়ি থেকে অপহরণ হয়

অপহরণের পর ১৩-১২-২০১৭ ইং দিবাগত রাত ০৯.০০ ঘটিকায় নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় মামলা করা হয়। মামলার নং-(৩২)

সাকির মা-বাবা বলেন, মামলার কিছুদিন পর পুলিশ সন্দেহ জনক দুইজনকে গ্রেফতার করে। তাদের একজনজিল্লুর রহমান এবং অন্যজন আব্দুর রহমান তপন

তারা আরো বলেন, গ্রেফতারের পরবর্তী সময়ে আসামীদেরকে আদালতে পাঠালে তারা জামিন নিয়ে বেরিয়ে আসে। কিন্তু নিখোঁজ সাকির কোন সন্ধান বা গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিবর্গেরও থেকেও কোন সুস্পষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি। অতপর এলাকাবাসীসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সহায়তায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে বেশ কয়েকবার মানববন্ধন করা হয়। তারপর পুলিশ সুপারের কাছে তদারকি তদন্তের কাজ জানতে চাইলে জেলা পুলিশ সুপার আমাদের আশ্বাস দেন যে, আসামী সনাক্ত হয়েছে তাই আমাদের কাজ আমাদের করতে দেন। 

তারা আরো জানান, নারায়ণগঞ্জ সদর থানার পুলিশ বলেন আমরা একটা লিংক পেয়েছি তাই আমাকে আরো ৭দিন সময় দেন। কিন্তু দিন অতিবাহিত না হতেই ওনি মামলাটা পি.ভি.আই এর কাছে হস্তান্তর করে। পি.ভি.আই মামলাটির দায়িত্ব নেওয়ার পর মামলার তদন্তকারী এস.আই আশরাফ আলম, দিন বাড়িতে আসে এবং তিনি বাড়ির লোকজনদের অপহরণ সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। দায়িত্ব নেওয়ার দিন পর পি.ভি.আই এর ওসি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আমাকে পি.ভি.আই এর অফিসে ডেকে নেয়। আমি পি.ভি.আই অফিসে যাই এবং আমাকে বলেন যে, এই ঘটনার সাথে শাক্তিশালী প্রভাবশালী লোক জড়িত আছে। এস.পি সাহেবের নির্দেশনা পেলে এদেরকে ধরে নিয়ে আসবো

কিন্তু এখন পর্যন্ত সাকির কোন খোঁজ খবর বা আসামী ধরা হয়নি।