র‌্যাব অভিযানের কারণে চট্টগ্রামে হঠাৎ স্বাস্থ্যসেবা বন্ধ ঘোষণা

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: ত্রুটিপূর্ণ লাইসেন্সে অদক্ষ-অনভিজ্ঞ ডাক্তার-নার্স দ্বারা পরিচালিত নগরের মেহেদিবাগের বেসরকারি ম্যাক্স হাসপাতালকে র‌্যাবের অভিযানের পর হঠাৎ করে চট্টগ্রামে স্বাস্থ্যসেবা বন্ধ ঘোষণা করেছে বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান সমিতি। গতকাল রোববার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারওয়ার আলম ম্যাক্স হাসপাতালকে ১০ লাখ ও সিএসসিআর হাসপাতালকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করেন। এরপর বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান সমিতির সভাপতি ডা. আবুল কাশেম এ ঘোষণা দেন। এরপর বেসরকারি ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিকগুলোর মূল ফটক বন্ধ করে দেওয়া হয় যাতে নতুন রোগী ঢুকতে না পারেন।

ডা. আবুল কাশেম বলেন, আমরা বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকেরা অনেক কষ্টের মাধ্যমে একেকটা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি। আমাদের দেশে চিকিৎসকেরা গরিব। চিকিৎসকের বেতনের টাকা দিয়ে এসব প্রতিষ্ঠান চালানো হচ্ছে। কিন্তু এসব প্রতিষ্ঠানকে যদি লাখ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। তা পরিশোধ করবে কীভাবে?

পরিবেশ-পরিস্থিতির কারণে জেলা-উপজেলায় সব স্তরের প্রাইভেট-প্র্যাকটিসসহ ডায়াগনস্টিক সেন্টার, বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসাসেবা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। যোগ করেন ডা. আবুল কাশেম।

তিনি বলেন, ‘সুষ্ঠুভাবে আমরা বেসরকারি হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো চালাতে চাই। আমাদের প্রতিষ্ঠানের ভুল-ভ্রান্তি আমরা সংশোধন করবো। সমিতির সাধারণ সম্পাদক ডা. লিয়াকত আলী খান জানান, হাসপাতালগুলোতে ভর্তি থাকা রোগীরা এ ঘোষণার আওতায় পড়বেন না; তাদের চিকিৎসা চলবে। এছাড়া বেসরকারি চিকিৎসকরা প্রয়োজনে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে রোগীদের সেবা দিতে পারবেন বলে তিনি জানান।

চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, ‘আমার দায়িত্ব সরকারি হাসপাতালগুলো দেখভাল করা। বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসাসেবা নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই না।

প্রিন্স, ঢাকা