জামায়াতের বাড়াবাড়ি সীমার বাইরে চলে যাচ্ছে: মির্জা আব্বাস

নিউজ ডেস্ক: সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর পরই বিএনপি যে মরন কামড় দেয়ার পরিকল্পনা ছক একেছিল জামায়ত তাতে নাও যেতে পারে। দলটির নেতারা মনে করেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে একই প্র্যাকটিস শুরু করেছে জামায়াত। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের আন্দোলনের জন্য বিএনপি প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করেছে। বিএনপি নেতাদের আশঙ্কা, তারা নির্বাচনের আগে যে আন্দোলনের কথা ভাবছেন, সেই আন্দোলনে জামায়াত যাবে না। সরকারের সঙ্গে সমঝোতার অংশ হিসেবে তারা নির্বাচনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

বিএনপির শীর্ষ ও মধ্যম সারির নেতা এবং সাধারণ নেতাকর্মীর সঙ্গে কথা বলে তাদের এমন মনোভাব জানা গেছে। দলটির কাছে খবর, জামায়াতের বড় একটি অংশের সঙ্গে সরকারের গোপন সম্পর্ক রয়েছে ।

সিলেটে জামায়াতের প্রার্থিতা বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, জামায়াত বাড়াবাড়ি করছে। তারা যা করছে তা ঐক্য বোঝায় না, ঐক্য থাকে না। তিনি বলেন, ঐক্য ভাঙার দায়িত্ব জামায়াত নিতে পারে, তারা তা করতেই পারে। ২০০৮ সালে জামায়াতের চাপে নির্বাচনে যেতে হয়েছিল, তার ফল এখনো ভোগ করতে হচ্ছে বিএনপিকে।

তিনি আরো বলেন, কয়েকটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থিতা নিয়ে জামায়াতের দরকষাকষিতে অসন্তুষ্ট বিএনপি। তখন থেকেই জোটের প্রধান দুই শরিকের মধ্যে টানাপড়েন শুরু হয়।

মির্জা আব্বাস ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, যখন দেশ থেকে একটি বোঝা দূর করতে আন্দোলন চলছে, সেখানে নতুন সমস্যা তৈরি করা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। স্থায়ী কমিটির দুই সদস্য ও এক যুগ্ম মহাসচিব মনে করেন, জামায়াত নিয়ে অনেক হয়েছে; ওরা যদি যেতে চায় চলে যাক।

জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্ক থাকুক- এটা ভারতসহ পশ্চিমা দেশগুলোও চায় না। কারণ, ভারতের ধারণা; এটা পাকিস্তানপন্থি দল। সম্প্রতি ভারত সফরকালে বিএনপি নেতাদের সঙ্গে দেশটির বিভিন্ন পর্যায়ে কর্তাব্যক্তিদের সফরেও জামায়াতের প্রসঙ্গটি উঠে এসেছে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ২০০১ সালে জাতীয় নির্বাচনের আগে দলের প্রতিক্রিয়াশীল অংশের মতামতে জামায়াতকে নিয়ে চারদলীয় জোট গঠন করে বিএনপি। ওই সময়েই মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেওয়া নেতারা এর বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। ওই নির্বাচনে জয়লাভ করে জামায়াতের আমির রাজাকার মতিউর রহমান চৌধুরী ও সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুজাহিদকে মন্ত্রী বানানো হয়। এ নিয়ে বিএনপিকে ঘরে-বাইরে ব্যাপক সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয়েছে।

বিএনপিতে এখন বলাবলি হচ্ছে, দেশে বৃহত্তর রাজনৈতিক ঐক্য গড়ে তোলার ক্ষেত্রে জামায়াত-ই বড় বাধা। তারা যুদ্ধাপরাধীদের দল। তাই তাদের সঙ্গে থেকে কেউ ঐক্য করতে চাইছে না।