সরকারী প্রাঃ বিদ্যালয়ের জমি আত্নসাত

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠি রাজাপুরে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমি আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন এলাকাবাসী। অভিযোগে উল্লেখ করেছেন যে, উপজেলার ৯৯নং উত্তর পূর্ব ছোট কৈবর্তখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ছিলেন মোঃ রুহুল আমীন। আর সেকারনেই বিদ্যালয়ের জমি সংক্রান্ত সকল কিছু তিনিই দেখাশুনা করতেন। ইতিপূর্বেই মোঃ রুহুল আমীনকে দুর্নীতি সংক্রান্ত কারনে পালিশমেন্ট বদলী করেছেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা।

আরো উল্লেখ করেন যে,রোজার পূর্বে বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে মাটি কেটে কলাগাছের বাগান করেছে। এলাকাবাসী বিদ্যালয়ের মাঠে কলাগাছ রোপন করার বিষয়ে জানতে চাইলে রুহুল আমীন বি এস রেকর্ড দেখার জন্য বলেন এলাকাবাসীকে। অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন যে, বিদ্যালয়ের নামে যে ২টি দলিল রয়েছে প্রথম দলিল নং-২৩৪৪ তারিখ ২৯/০৮/১৯৯১, জমির পরিমান ৩৫ শতাংশ দাতা মোঃ রুহুল আমীন এবং দ্বিতীয় দলিল নং-২৩০৬ তারিখ ১৫/১১/১৯৯৪ইং, জমির পরিমান ১৮ শতাংশ, দাতা মোবারেক আলী। দুটি দলিলে মোট জমির পরিমান ৫৩শতাংশ।দুটি দলিলেরই গ্রহীতা উত্তর পূর্ব ছোট কৈবর্তখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পক্ষে শিক্ষা সচিব,শিক্ষা মন্ত্রনালয় বাংলাদেশ সরকার।

বিএস পরচায় বিদ্যালয়ের নামে রেকর্ড করিয়েছে মাত্র ১২ শতাংশ। বাকী ৪১ শতাংশ জমি রুহুল আমীনের মৃত মা,বাবা ও ভাই বোনদেরসহ নিজের নামে রেকর্ড নিয়েছে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা বেগম পারুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, অভিযোগ পেয়েছি এবং প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।উপজেলা র্নিবাহী কর্মকর্তা বলেন সরকারী জমি আত্নসাত কারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং দখল মুক্ত করতে ল্যান্ড সারভেয়ারের মাধ্যমে স্কুলের জমি উদ্ধার করা হবে।

প্রিন্স, ঢাকা