আজ ফরাসির মুখোমুখি আর্জেন্টিনা

নিউজ ডেস্ক: একবার নামগুলোর দিকে চোখ মিলিয়ে নিন-কিলিয়ান এমবাপ্পে, অলিভের জিরুদ, আতোয়ান গ্রিজম্যান ও এনগোলা কান্তে, মাতুইদি ও পল পগবা। ফ্রান্সের আক্রমণভাগটা সামলানোর দায়িত্বটা এই ছয়জনের ঘাড়ে। নক আউট পর্বের প্রথম ম্যাচে আজ আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগে ত্রাস ছাড়াবেন এই ষষ্ঠক। এই মূহূর্তে পৃথিবীর সেরা আক্রমণভাগকে সামলানোর জন্য কতটুকু প্রস্তুত আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগ?

সমর্থকদের শরীরে কাঁপুনি এনে তবেই রাশিয়া বিশ্বকাপের নক আউট পর্বে উঠেছে আর্জেন্টিনা। গ্রুপ পর্বের প্রতিপক্ষ নাইজেরিয়া, আইসল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়া পাঁচবার আলবিসেলেস্তাদের রক্ষণ দূর্গ ভেঙে ফেলেন। তাহলে কিভাবে ফরাসিদের গোলার আঘাত প্রতিহত করবে সাম্পাওলির দল!কারণ এবারের আসরে সুনাম ধরে রাখতে পারেনি আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগ।

নক আউট পর্বে আরো একটা সমস্যা ভোগাবে আর্জেন্টিনাকে। কারণ দলটির রক্ষণভাগের পাঁচ ফুটবলার একটি করে হলুদ কার্ড দেখেছেন। প্রথম তিনজন হলুদ কার্ড দেখেছেন ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে মেসিসহ আরো দুটি কার্ড দেখে আর্জেন্টিনা। হলুদ কার্ড দেখাদের ফুটবলার হলেন- লিওনেল মেসি ও জাভিয়ের মাশ্চেরানো, নিকোলাস ওটামেন্ডি, গ্যাব্রিয়েল মার্কাদো, মার্কোস আকুনা ও এভার বানেগা। আজ ফ্রান্সের বিপক্ষে ম্যাচে খাতবেন এই ছয়জনই। এই ম্যাচে কেউ যদি আর একটি হলুদ কার্ড দেখলে পরের ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হবেন।

ফ্রান্সের বিপক্ষে জিততে হলে দলটির আক্রমণভাগকে আগে সামলাতে হবে আর্জেন্টিনার। গ্রিজম্যান এই বিশ্বকাপে এখনও সেরাছন্দে ফিরতে পারেননি। জিততে হলে ফ্রান্সের সেন্টার ফরোয়ার্ডকে যেকোনো মূল্যে নিষ্ক্রিয় করতে হবে মাশ্টেরানো-অতোমেন্দিদের। লেফট উইংয়ে মাতুইদিও ভালো খেলছেন না। এই দুটি পজিশন ভালোভাবে মার্ক করতে পারলে এমবোপ্প ও জিরুদ ভালোমতো বলের জোগান পাবেন না। আর এমনটা হলে মহাপরাক্রমশালী ফরাসিদের হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে পারবে আর্জেন্টিনা।