ককটেলসহ ছাত্রদলের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক আটক

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ায় নাশকতার অভিযোগে নব গঠিত কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মাহফুজুর রহমান মিথুন, সাধারণ সম্পাদক এসআর শিপন, যুগ্ম সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাব্বী, রফিকুল ইসলাম প্রশান্ত ও সাংগঠনিক সম্পাদক রোকনুজ্জামান রাসেলসহ অন্তত ৩০ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তাদের হেফাজত থেকে ২৩টি ককটেল উদ্ধার করা হয়। তবে দলীয় সুত্রে জানা গেছে ৪১জন ছাত্রদল ও বিএনপির নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শুক্রবার রাত ৯টার দিকে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদ’র অন্যতম সদস্য ব্যারিস্টার রাগিব রউফ চৌধুরীর থানা মোড়স্থ বাড়ি থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি শেখ ওবায়দুল্লাহ জানান থানা মোড়স্থ ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরীর বাড়িতে বিএনপি’র বেশ কিছু নেতাকর্মী নাশকতার পরিকল্পনা করছিল এমন সংবাদে সেখানে অভিযান চালানো হয়। এসময় ছাত্রদলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ৩০জনকে ২৩টি ককটেলসহ আটক করা হয়। আটককৃতদের কে শনিবার সকালে কুষ্টিয়ার আদালতে প্রেরন করা হলে তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরন করে।

এবিষয়ে কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরীর বাড়িতে নেতাকর্মীরা সৌজন্য সাক্ষাত করতে গেলে পুলিশ তাদেরকে আটক করে।

এদিকে পুলিশ জেলা ছাত্রদল ও বিএনপির ৪১ নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করায় জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক শহিদুল ইসলাম, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, সরকার বিএনপিকে ধ্বংশ করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে বিএনপির নেতা কর্মীদেরকে আটক করে নাশকতা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি অব্যাহত রেখেছে। অবিলম্বে গ্রেফতাকৃত নেতা কর্মীদেরকে মুক্তির দাবী জানান ওই নেতৃবৃন্দ।