ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ: শ্রম প্রতিমন্ত্রী

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক বলেছেন, যে কোনো উপায়ে ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে সরকার দৃঢ়ভাবে অঙ্গীকারবদ্ধ। এ অঙ্গিকার বাস্তবায়নে সরকার ২৮৫ কোটি টাকার তিনবছর মেয়াদি একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে।

প্রতিমন্ত্রী বুধবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে জাতীয় শিশুশ্রম কল্যাণ পরিষদের ষষ্ঠ সভায় সভাপতির বক্তৃতায় একথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা অর্জনে ২০২৫ সালের মধ্যে সকল প্রকার শিশুশ্রম নিরসন করা হবে। এজন্য সরকারি-বেসরকারি সংস্থা নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ২০১৩ সালের পর সরকারিভাবে শিশুশ্রমের ওপর কোনো জরিপ করা হয়নি। ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে হালনাগাদ তথ্য প্রয়োজন। সারা দেশে ৩৮টি ঝুঁকিপূর্ণ কাজে কি পরিমাণ শিশু নিয়োজিত রয়েছে সে বিষয়ে একটি জরিপ কার্যক্রম গ্রহণে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোকে অনুরোধ করবে মন্ত্রণালয়। ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনের উপায় সংবলিত বিভিন্ন সংবাদ গণমাধ্যমে গুরুত্বের সাথে তুলে ধরার জন্য প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

সভায় জানানো হয়, শিশুশ্রম কল্যাণ পরিষদের সাথে সংশ্লিষ্ট আইএলও, ইউনিসেফসহ বিভিন্ন আর্ন্তজাতিক সংস্থা, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম, ওয়ার্ল্ড ভিশন, আইন ও সালিশ কেন্দ্র, বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতিসহ শিশুশ্রম নিরসন কার্যক্রমের সাথে জড়িত বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থাগুলো নিষ্ঠার সাথে কাজ করছে।

মন্ত্রণালয়ের সচিব আফরোজা খান, অতিরিক্ত সচিব খোন্দকার মোস্তান হোসেন, বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট সালমা আলী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক মোঃ শামসুজ্জামান ভূঁইয়া, শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শিবনাথ রায়, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, আইএলও, ইউনিসেফসহ বিভিন্ন আর্ন্তজাতিক সংস্থা এবং এনজিও প্রতিনিধিগণ সভায় অংশ গ্রহণ করেন।

প্রিন্স, ঢাকা নিউজ২৪