আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করলে রাজস্ব আয় বাড়বে: গণপূর্তমন্ত্রী

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ভ্যাট আদায়ে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করলে রাজস্ব আয় কয়েকগুণ বাড়বে। সে ক্ষেত্রে ভ্যাটের হার কমিয়ে শতকরা সাতভাগ করা হলেও বর্তমানের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি ভ্যাট আদায় হবে। এজন্য প্রত্যেকটি দোকান, ব্যবসা ও সেবাকেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ক্যাশ রেজিস্ট্রার স্থাপন করতে হবে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সার্ভারের সাথে এ ক্যাশ রেজিস্ট্রারের সংযোগ থাকবে। তাহলে জনগণ ভ্যাট প্রদান করার সাথে সাথেই তা সার্ভারে চলে যাবে। জনগণ যথাযথভাবে ভ্যাট দিলেও তার পুরোটা সরকারি কোষাগারে জমা হয় না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

২৫ জুন ইনস্টিটিউট অভ্ কস্টম্যানেজমেন্ট এন্ড অ্যাকাউন্টিং অভ্ বাংলাদেশ আয়োজিত বাজেট ২০১৮-১৯ এর ওপর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ভ্যাট আদায়ে ব্যক্তির ওপর নির্ভরতার কারণে অনেক সিস্টেম লস হচ্ছে। বর্তমান সরকারের সঠিক আর্থিক ব্যবস্থাপনার কারণে গ্রামীণ অর্থনীতি শক্তিশালী হয়েছে। মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে। গ্রামের দোকানেও এখন অনেক আধুনিক ও উন্নতমানের পণ্যসামগ্রী দেখা যায়। সরকার তথ্যপ্রযুক্তিকে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়ে গেছে। তাই গ্রামের দোকানেও ইলেক্ট্রনিক ক্যাশ রেজিস্ট্রার চালু করা সম্ভব। গ্রামাঞ্চলেও অনেক মানুষই করযোগ্য আয় করেন। তাই কর আহরণের পরিধি বাড়িয়ে তৃণমূল পর্যায়ের মানুষকেও করের আওতায় আনতে হবে। এক্ষেত্রে কর আহরণকে আরো সহজ করতে হবে। ১৬ কোটি মানুষের দেশে ৩৫ লাখ লোকের ইটিআইএন কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

আইসিএমএবি’র প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সেলিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটের ওপর দু’টি উপস্থাপনা তুলে ধরা হয়। বাজেটের আইনগত বিভিন্ন দিক ও তার সংস্কার বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কর অঞ্চল ৭ এর কমিশনার রঞ্জন কুমার ভৌমিক এবং খাতভিত্তিক বরাদ্দ ও রাজস্ব আদায়ের হারের ওপর উপস্থাপনা তুলে ধরেন আইসিএমএবি’র সচিব অর্থমন্ত্রণালয়ের উপসচিব আব্দুর রহমান খান।

প্রিন্স, ঢাকা নিউজ২৪