বন্দুকযুদ্ধে শিশু অপহরণকারী ২সদস্য নিহত

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার মিরপুরে পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শিশু অপহরকারী চক্রের দুই সদস্য নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে উপজেলা চিথলিয়া ইউনিয়নের পাহাড়পুর ও চিথলিয়া গ্রামের এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। পাহাড়পুর ব্রীজের নিকট বন্দুকযুদ্ধে নাঈম ইসলাম (২৭) ও চিথলিয়া গ্রামের বন্দুকযুদ্ধে জোয়ার আলী (২৮) নামে দুই যুবক নিহত হয়েছেন। পুলিশ জানায় নিহতরা মিরপুরের আলোচিত স্কুল ছাত্র দেবদত্ত অপহরন ও হত্যা মামলার আসামী। তাদের স্বীকারোক্তিনুযায়ী সোমবার দুপুরে নাঈমের বাড়ির শৌচাগোরের পরিত্যাক্ত টাংকি ভিতর থেকে দেবদত্তের হাত-পা বাঁধা বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের দাবি বন্দুকযুদ্ধে ৭ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও রামদা উদ্ধার করেছে। মিরপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, স্কুল ছাত্র দেবদত্ত অপহরন ও হত্যা মামলার বাকি আসামিদের ধরতে নাঈম ও জোয়ার এর দেয়া তথ্যমতে তাদেরকে সঙ্গে নিয়ে চিথলিয়া ইউনিয়নের পাহাড়পুর ও চিথলিয়া গ্রামে পৃথক অভিযান চালানো হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। জবাবে পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জোয়ার ও নাঈম গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে মিরপুর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গুলিবিদ্ধ দুইজনকে মৃত ঘোষনা করেন। এ ঘটনায় পুলিশের ৭ সদস্য আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুইটি দেশীয় তৈরী বন্দুক, ৭ রাউন্ড গুলি ও ৪টি রামদা উদ্ধার করেছে।

নিহত নাঈম ইসলাম মিরপুর উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের মালিথাপাড়ার জহুরুল ইসলামের ছেলে ও জোয়ার আলী একই গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে। পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। উল্লেখ্য, গত ৯ জুন সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মিরপুর উপজেলার চিথলিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্র দেবদত্ত((৯) প্রাইভেট পড়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর স্থানীয়দের কাছ থেকে তার পরিবার জানতে পারে দুইজন মোটরসাইকেল আরোহী রাস্তা থেকে দেবকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর ঐদিন তার বাবা স্কুল শিক্ষক পবিত্র দত্তের মুঠোফোনে অপহরণকারীরা অর্ধকোটি টাকা মুক্তপণ দাবি করে। এ ঘটনায় পুলিশ নাঈম ও জোয়ারকে আটক করে। তাদের স্বীকারোক্তিনুযায়ী সোমবার দুপুরে পুলিশ নাঈমের বাড়ির শৌচাগোরের পরিত্যাক্ত টাংকির ভিতর থেকে দেবদত্তের হাত-পা বাঁধা বস্তাবন্দি অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে।

প্রিন্স, ঢাকা