নোয়াখালীতে গৃহবধূকে হত্যা, স্বামী পলাতক

নিউজ ডেস্ক : রোববার বিকালে নোয়াখালীর উপজেলা সাতরা গ্রামে রাস্তার উপর প্রিয়া বেগমকে আহত অবস্থায় পাওয়া যায়। হাসপাতালে নেওয়ার পর তিনি মারা যান।

নিহত প্রিয়া বেগম (২০) নোয়াখলা ইউনিয়নের সাতরা গ্রামের ননা মিয়ার মেয়ে এবং সাহাপুর ইউনিয়নের কালা মিয়ার ছেলে আল আমিনের স্ত্রী। 

প্রিয়া বেগমকে তার স্বামী হত্যা করেছেন বলে পরিবারের অভিযোগ। 

প্রিয়ার মা হালিমা খাতুন বলেন, দুই বছর আগে আল আমিন ও প্রিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে আল আমিন মাদকাসক্ত হয়ে প্রিয়াকে মারধর করত। স্বামীর নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে প্রিয়া গত দুই মাস থেকে বাবার বাড়ি অবস্থান করছিলেন। 

“রোববার বিকালে আল আমিন প্রিয়াকে নিজ বাড়ি নেওয়ার কথা বলে শ্বশুর বাড়ি থেকে বের করে। পরে সাতরা গ্রামের বাবু মেম্বারের বাড়ির পাশে সড়কের উপর গলা কেটে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়।” 

আশংকাজনক অবস্থায় তাকে জেলা সদরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়; সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে হালিমা জানান। 

চাটখিল-সোনাইমুড়ী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল্যাহ আল মাসুম জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে আল আমিন পলাতক রয়েছেন।