কী ঘটতে যাচ্ছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা-জার্মানির ভাগ্যে?

নিউজ ডেস্ক : বিশ্বকাপ শুরু হতে না হতেই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা-জার্মানির ভাগ্য নিয়ে আলোচনা করতে হবে এটা বোধহয় কেউই ভাবেননি। বিধিবাম, মাত্র এক ম্যাচ খেলেই কিছুটা হলেও অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে এগারবারের শিরোপাধারী এই চ্যাম্পিয়ন ত্রয়ী। জার্মানি প্রথম ম্যাচে হেরে গেছে মেক্সিকোর বিপক্ষে। ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনাকে প্রথম ম্যাচে ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, আসলে কী ঘটতে যাচ্ছে এই তিন দলের ভাগ্যে?

আগামী ২২ জুন নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আর্জেন্টিনা খেলবে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। মেসি-ডি মারিয়াদের জন্য এটি ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচ। প্রথম ম্যাচে নাইজেরিয়াকে ২-০ গোলে হারানো ক্রোয়েটদের হারাতে যথেষ্টই বেগ পেতে হবে বর্তমান রানারআপদের। বিশেষ করে রাকিতিচ-মডরিচরা নাইজেরিয়ার বিপক্ষে যেভাবে খেলেছেন তাতে করে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে তাদের জয়ের সম্ভাবনাই দেখছেন ফুটবলবোদ্ধারা। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে জয় না পেলে কিন্তু আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ ভাগ্য আসলেই ঝুলে পড়বে। আর এমনটা হলে ২০০২ সালের পর আবার গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হতে পারে আলবিসেলেস্তাদের। এমনকি নাইজেরিয়াকেও আর্জেন্টাইনদের বিপক্ষে খাটো করে দেখার উপায় নেই।

১৯৬৬ সালের পর গ্রুপ পর্ব থেকে আর কখনই বাদ পড়েনি ব্রাজিল। এবার পড়বে আগ বাড়িয়ে সেই কথাও বলা হচ্ছে না। সুইজারর‌্যান্ডের বিপক্ষে ভাগ্যদেবী বারবারই যেভাবে নেইমার-কুতিনহোদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন তাতে করে এবার ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। ২২ জুন কোস্টারিকার বিপক্ষে মাঠে নামবে তিতের দল। কোস্টারিকা যেভাবে সার্বিয়ার বিপক্ষে খেলেছে তাতে এই ম্যাচে ব্রাজিলের জয়ের সম্ভাবনাই বেশি। নেইমারদের পরীক্ষা দিতে হবে সার্বিয়ার বিপক্ষে। সেই ম্যাচটা যে কোনোমূল্যেই জিততে হবে হলুদ জার্সিধারীদের।

কাগজে কলমে এবারের আসরেও সবচেয়ে শক্তিশালী দল জার্মানি। একঝাঁক তারকা আর বাছাইপর্বে অসাধারণ পারফরম্যান্স। তারপরও প্রথম ম্যাচে হারের স্বাদ গ্রহণ করতে হয়েছে জোয়াকিম লো’র শিষ্যদের। পরের দুটি ম্যাচে জার্মানদের প্রতিপক্ষ সুইডেন ও দক্ষিণ কোরিয়া। ইতালির মতো দলকে কাঁদিয়ে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে সুইডিশরা। তাদের বিপক্ষে কোনো প্রকারের অনুকম্পা পাবেন না ওজিল-মুলাররা। কোনোক্রমে সেই ম্যাচেও যদি হেরে যায় জার্মানি তাহলে কিন্তু প্রথম রাউন্ডেই দলটির বিদায় ঘণ্টা বেজে যেতে পারে, যেমনটি গত আসরে স্পেনের ভাগ্যে ঘটেছিল।