গোলাপগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই বোনের মুত্যু

গোলাপগঞ্জে প্রতিনিধি: পানিতে ডুবে কবর হয়ে গেলো দিনমজুর পরিবারের ঈদের আনন্দ। সিলেটের গোলাপগঞ্জে পানিতে ডুবে মাইশা বেগম (২) ও দেড় বছর বয়সের আনিশা বেগম মরিয়ম নামে দুই’বোনের মৃত্যু হয়েছে। মাইশা মরিয়মের আপন চাচাতো বোন। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার ফুলবাড়ী উত্তরপাড়া গ্রামে। শিশু মাইশা রাজমিস্ত্রি ফরিদ উদ্দিনের প্রথম কন্যা এবং মরিয়ম দিনমজুর শিবলুর ২য় কন্যা।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গতকাল রবিবার দু’পরিবারের সকল সদস্যরা সেহরী খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। ভোর সকালের কোন এক সময় ঘরের দরজা খোলা থাকায় দু’শিশু খেলা করার জন্য ঘর থেকে বের হন। সকাল ৭টায় নিহত মাইশার খালা রোকশানা বেগম তাকে ঘর ও ঘরের বাইরে না দেখে খোঁজাখুঁজি করার এক পর্যায়ে বাড়ীর সামনের পুকুরে মাইশা ও মরিয়মের লাশ ভাসতে দেখেন।

পরে স্বজনরা তাদের লাশ পুকুর থেকে উদ্ধার করে। বাদ আছর স্থানীয় জামে মসজিদে জানাজা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়। রাত ৯টায় নিহত দুই শিশুর বাড়ীতে গিয়ে দেখা এক হৃদয় বিদারক দৃশ্য। দু’কন্যা শিশুর মায়ের কান্নায় আকাশ বাতাশ ভারী হয়ে উঠছে। আর মাত্র ক’দিন পর ঈদ। নিহতের পরিবারে ঈদের আনন্দের বদলে শোকের মাতম বইছে। মাইশার মা এক হৃদয় বিদারক কণ্টে বলেন। সে আমার একমাত্র মেয়ে ছিল। ঘরটি মাতিয়ে রাখতো মেয়েটি। তাকে আর ঈদের জামা কাপড় কিনে দেয়া হলনা আমার। আমি একা হয়ে গেলাম। কে আর আমাকে মা বলে ডাকবে। এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি একেএম ফজলুল হক শিবলীর সাথে আলাপ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত দেড় বছরের শিশু মরিয়মের ফটো পাওয়া যায়নি।

প্রিন্স, ঢাকা